ফতুল্লায় আটকরা নব্য জেএমবির সদস্য: মনিরুল ইসলাম

  আল আমিন প্রধান, ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:২২:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

ফতুল্লায় সাংবাদিকদের ব্রিফ করছেন মনিরুল ইসলাম ছবি-- আল আমিন প্রধান

পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেছেন, জঙ্গি সন্দেহে ঢাকায় একজনকে আটকের পর তার দেয়া তথ্যে রোববার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ফতুল্লার একটি বাড়িতে অভিযান চালানো হয়।

এখানে তক্কারমাঠ এলাকায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এক দম্পতিকে আটক করা হয়। ফতুল্লায় আটক তিনজনই নব্য জেএমবির সদস্য।

মনিরুল ইসলাম আরও বলেন, বাড়িটিতে পাওয়া বিস্ফোরকের সঙ্গে সম্প্রতি রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে জঙ্গি আস্তানায় পাওয়া বিস্ফোরকের মিল রয়েছে।

সোমবার দুপুরে ফতুল্লার তক্কারমাঠ এলাকার ওই বাড়ি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এসব বলেন।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় জঙ্গি আস্তানা দেখতে উৎসক জনতার ভিড় বাড়তে থাকে।

ওই বাড়ির চারপাশ পুলিশ ঘিরে রাখলেও সড়ক ও আশপাশের বহুতল বাড়ির ছাদে ভিড় করেন জনতা।

এর মধ্যে সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ঢাকা থেকে বোম্ব ডিসপজাল ইউনিটের একটি দল। এর পর ওই বাড়িতে রোবট নিয়ে প্রবেশ করে।

রোববার দিবাগত রাত ৩টা থেকে ফতুল্লার তক্কারমাঠ এলাকায় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা জয়নাল আবেদিনের বাড়িটি ঘিরে চালানো অভিযানে এ পর্যন্ত দম্পতিসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- ব্যাংক কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীনের ছেলে ফরিদ উদ্দিন রুমি (২৭), তার ছোট ভাই জামাল উদ্দিন রফিক (২৩) ও রুমির স্ত্রী জান্নাতুল ফুয়ারা অনু (২২)।

এদের মধ্যে জামাল উদ্দিন রফিককে আগেই ঢাকা থেকে আট করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। তার দেয়া তথ্যেই পরে তাদের ফতুল্লার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন যুগান্তরকে বলেন, আমাদের জেলা পুলিশ কাউন্টার টেররিজম টিমকে সহযোগিতা করছে।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত