ভুল স্বীকার করলে পাহাড়ের সন্ত্রাসীদের পুনর্বাসন করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  রামগড় (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৫২ | অনলাইন সংস্করণ

ফিতা কেটে রামগড় থানা-কাম-ব্যারাক ভবন উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান
ফিতা কেটে রামগড় থানা-কাম-ব্যারাক ভবন উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান

ভুল স্বীকার করে সরকারের কাছে আবেদন করলে পাহাড়ের সন্ত্রাসীদের পুনর্বাসনে সবকিছু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান।

তিনি বলেন, পাহাড়ে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কাজ করছে সরকার। সরকারের সঙ্গে সঙ্গে এ দেশের জনগণও সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয় না। পাহাড়ের আইন-শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে পুলিশ ও বিজিবির সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।

বুধবার দুপুরে খাগড়াছড়ির রামগড় সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে রামগড় থানার নবনির্মিত ভবন উদ্বোধনকালে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এ সব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, পাহাড়ে যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করছেন তারা যদি ভুল স্বীকার করে সরকারের কাছে আবেদন করেন তাহলে সরকার তাদের পুনর্বাসনে সবকিছু করবে। সরকার ইতিমধ্যে ৬৩০ জন চরমপন্থী সন্ত্রাসীর আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের পুনর্বাসন করেছে।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামানের সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈয়দ মোহাম্মদ ফরহাদের সঞ্চালনায় সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজাতীয় শরণার্থী ট্রাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি, সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য বাসন্তি চাকমা, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, রামগড় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্ব ত্রিপুরা, পৌর মেয়র মোহাম্মদ শাহজাহান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী নুরুল আলম, রামগড় পুলিশিং কমিটির সভাপতি মংপ্রু চৌধুরী।

এ সময় পুলিশ ও সামরিক বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, দলীয় নেতাকর্মী ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মন্ত্রী গণপূর্ত বিভাগের বাস্তবায়নে ৭ কোটি ৩৫ লাখ ২৭ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত রামগড় থানা-কাম-ব্যারাক ভবন উদ্বোধন করেন। তিনি নতুন ভবনের কয়েকটি কক্ষও ঘুরে দেখেন।

এ সময় খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম, গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×