হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে
jugantor
হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:০৮:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে
ফাইল ছবি

রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স শুনানির জন্য রায়সহ মূল নথি হাইকোর্টে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল থেকে মামলার এজাহার, চার্জশিট, সাক্ষীদের জবানবন্দি ও রায়সহ যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টে পাঠানো হয়। 

সুপ্রিমকোর্টের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার সাইফুর রহমান যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। 

এর আগে সংশ্লিষ্ট আদালতের পেশকার পারভেজ ভূঁইয়া এ তথ্য জানান।  তিনি বলেন, ‘মামলার এজাহার, জব্দ তালিকা, চার্জশিট, সাক্ষীদের সাক্ষ্য, রায়সহ মোট দুই হাজার ৩০৭ পৃষ্ঠার যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে রায় ১৩৪ পৃষ্ঠা।  হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখা নথিপত্র রিসিভ করেছে।’

গত ২৭ নভেম্বর ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান আলোচিত এই মামলার রায় ঘোষণা করেন।  রায়ে আট আসামির মধ্যে সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান নামে এক আসামিকে খালাস দেয়া হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহকারী নব্য জেএমবি নেতা হাদিসুর রহমান সাগর, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক তামিম চৌধুরীর সহযোগী আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে আবু জাররা ওরফে র‌্যাশ, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব ওরফে রাজীব গান্ধী, হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী আব্দুস সবুর খান (হাসান) ওরফে সোহেল মাহফুজ, মামুনুর রশিদ ও শরিফুল ইসলাম।

হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে
ফাইল ছবি

রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স শুনানির জন্য রায়সহ মূল নথি হাইকোর্টে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল থেকে মামলার এজাহার, চার্জশিট, সাক্ষীদের জবানবন্দি ও রায়সহ যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টে পাঠানো হয়।

সুপ্রিমকোর্টের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার সাইফুর রহমান যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে সংশ্লিষ্ট আদালতের পেশকার পারভেজ ভূঁইয়া এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘মামলার এজাহার, জব্দ তালিকা, চার্জশিট, সাক্ষীদের সাক্ষ্য, রায়সহ মোট দুই হাজার ৩০৭ পৃষ্ঠার যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে রায় ১৩৪ পৃষ্ঠা। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখা নথিপত্র রিসিভ করেছে।’

গত ২৭ নভেম্বর ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান আলোচিত এই মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে আট আসামির মধ্যে সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান নামে এক আসামিকে খালাস দেয়া হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহকারী নব্য জেএমবি নেতা হাদিসুর রহমান সাগর, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক তামিম চৌধুরীর সহযোগী আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে আবু জাররা ওরফে র‌্যাশ, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব ওরফে রাজীব গান্ধী, হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী আব্দুস সবুর খান (হাসান) ওরফে সোহেল মাহফুজ, মামুনুর রশিদ ও শরিফুল ইসলাম।

 

ঘটনাপ্রবাহ : হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা