আমার বাবা কি মুসলমান ছিলেন না, প্রশ্ন নুজহাত চৌধুরীর
jugantor
আমার বাবা কি মুসলমান ছিলেন না, প্রশ্ন নুজহাত চৌধুরীর

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৩১:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ধর্মকে ব্যবহার করে একাত্তরে লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. আলীম চৌধুরীর মেয়ে ডা. নুজহাত চৌধুরী। যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে রাজনীতি করে তাদের প্রত্যাখ্যানের আহ্বান জানিয়ে তিনি প্রশ্ন রাখেন, আমার বাবা কি মুসলমানমান ছিলেন না? ধর্মের দোহাই দিয়েই একাত্তরে আমার বাবার মতো লাখ লাখ মুসলমানকে হত্যা করা হয়েছিল-যোগ করেন নুজহাত।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে শনিবার জাতীয় জাদুঘর আয়োজিত সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। 

তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ডা. নুজহাত বলেন, ধর্মের কথা বলে কেউ কোনো দিন তোমাকে কাউকে ঘৃণা করতে শেখাতে পারে না। ইসলাম ধর্মের মতো প্রতিটি ধর্ম মানবতাবাদের ধর্ম। সব ধর্মই মানুষকে ভালোবাসার কথা বলে।

তিনি যোগ করেন, ‘যে মানুষ তোমার কাছে রাজনীতির সঙ্গে ধর্ম মিশিয়ে কথা বলবে, তাকে বলবে- খবরদার, আমার ধর্ম ব্যবহার করবেন না। রাজনীতি অন্যভাবে করেন। এই মানুষগুলো ধর্মের কথা বলে আমাদের বাবাদের মেরেছে। আমাদের বাবারা কি মুসলমান ছিলেন না? আমরা কি প্রতি মুহূর্তে আল্লাহর কাছে সেই বিচার চাইছি না?’

স্বাধীনতাবিরোধী-দেশবিরোধীদের চিনে রাখার পরামর্শ দিয়ে নুজহাত চৌধুরী বলেন, শত্রু ও মিত্রকে চেনার জন্য আমাদেরকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। জানতে হবে কারা বাংলাদেশ চেয়েছিল, আর কারা চায়নি। আমাদের শত্রু-মিত্র চিনতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মো. রিয়াজ আহম্মদ, আরও বক্তৃতা করেন সুলতানা কামাল প্রমুখ।

আমার বাবা কি মুসলমান ছিলেন না, প্রশ্ন নুজহাত চৌধুরীর

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৩১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ধর্মকে ব্যবহার করে একাত্তরে লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. আলীম চৌধুরীর মেয়ে ডা. নুজহাত চৌধুরী। যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে রাজনীতি করে তাদের প্রত্যাখ্যানের আহ্বান জানিয়ে তিনি প্রশ্ন রাখেন, আমার বাবা কি মুসলমানমান ছিলেন না? ধর্মের দোহাই দিয়েই একাত্তরে আমার বাবার মতো লাখ লাখ মুসলমানকে হত্যা করা হয়েছিল-যোগ করেন নুজহাত।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে শনিবার জাতীয় জাদুঘর আয়োজিত সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ডা. নুজহাত বলেন, ধর্মের কথা বলে কেউ কোনো দিন তোমাকে কাউকে ঘৃণা করতে শেখাতে পারে না। ইসলাম ধর্মের মতো প্রতিটি ধর্ম মানবতাবাদের ধর্ম। সব ধর্মই মানুষকে ভালোবাসার কথা বলে।

তিনি যোগ করেন, ‘যে মানুষ তোমার কাছে রাজনীতির সঙ্গে ধর্ম মিশিয়ে কথা বলবে, তাকে বলবে- খবরদার, আমার ধর্ম ব্যবহার করবেন না। রাজনীতি অন্যভাবে করেন। এই মানুষগুলো ধর্মের কথা বলে আমাদের বাবাদের মেরেছে। আমাদের বাবারা কি মুসলমান ছিলেন না? আমরা কি প্রতি মুহূর্তে আল্লাহর কাছে সেই বিচার চাইছি না?’

স্বাধীনতাবিরোধী-দেশবিরোধীদের চিনে রাখার পরামর্শ দিয়ে নুজহাত চৌধুরী বলেন, শত্রু ও মিত্রকে চেনার জন্য আমাদেরকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। জানতে হবে কারা বাংলাদেশ চেয়েছিল, আর কারা চায়নি। আমাদের শত্রু-মিত্র চিনতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মো. রিয়াজ আহম্মদ, আরও বক্তৃতা করেন সুলতানা কামাল প্রমুখ।