কারা হাসপাতালে কতজন চিকিৎসক প্রয়োজন জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট
jugantor
কারা হাসপাতালে কতজন চিকিৎসক প্রয়োজন জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৪ জানুয়ারি ২০২০, ২০:০৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

আপাতত জরুরিভিত্তিতে সারা দেশের কারা হাসপাতালগুলোতে কতজন চিকিৎসক প্রয়োজন- তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।  একই সঙ্গে চিকিৎসক নিয়োগ বিধিমালা চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত চিকিৎসক নিয়োগে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে- তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। 

এ ছাড়া কারা হাসপাতালে প্রেষণে ১৬ চিকিৎসক নিয়োগকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কী ব্যবস্থা নিয়েছে- তাও জানাতে বলা হয়েছে। কারা কর্তৃপক্ষকে আগামী ২৭ জানুয়ারি মধ্যে এ সব জানাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। 

কারা বিভাগে এক চিকিৎসক নিয়োগ ইউনিট প্রতিষ্ঠার জন্য 'সুরক্ষা সেবা বিভাগের চিকিৎসক নিয়োগ বিধিমালা-২০১৯' নামে করা এই বিধিমালার খসড়া হাইকোর্টে দাখিল করার পর এ আদেশ দেন আদালত।

কারাগারে পর্যাপ্ত চিকিৎসক না থাকায় এ নিয়ে হাইকোর্টে পৃথক দুটি রিট আবেদন করা হয়। একটি রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জে আর খান রবিন এবং অপরটি করে মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

আদালতে রিট আবেদনকারীরপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট জে আর খান রবিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

কারা হাসপাতালে কতজন চিকিৎসক প্রয়োজন জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৪ জানুয়ারি ২০২০, ০৮:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আপাতত জরুরিভিত্তিতে সারা দেশের কারা হাসপাতালগুলোতে কতজন চিকিৎসক প্রয়োজন- তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে চিকিৎসক নিয়োগ বিধিমালা চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত চিকিৎসক নিয়োগে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে- তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া কারা হাসপাতালে প্রেষণে ১৬ চিকিৎসক নিয়োগকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কী ব্যবস্থা নিয়েছে- তাও জানাতে বলা হয়েছে। কারা কর্তৃপক্ষকে আগামী ২৭ জানুয়ারি মধ্যে এ সব জানাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

কারা বিভাগে এক চিকিৎসক নিয়োগ ইউনিট প্রতিষ্ঠার জন্য 'সুরক্ষা সেবা বিভাগের চিকিৎসক নিয়োগ বিধিমালা-২০১৯' নামে করা এই বিধিমালার খসড়া হাইকোর্টে দাখিল করার পর এ আদেশ দেন আদালত।

কারাগারে পর্যাপ্ত চিকিৎসক না থাকায় এ নিয়ে হাইকোর্টে পৃথক দুটি রিট আবেদন করা হয়। একটি রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জে আর খান রবিন এবং অপরটি করে মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

আদালতে রিট আবেদনকারীরপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট জে আর খান রবিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

 
আরও খবর