ইজতেমার আয়োজনে বিদেশি মুসল্লিরা সন্তুষ্ট: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

  যুগান্তর ডেস্ক ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

তাবলিগ জামাতের একাংশের শীর্ষ মুরব্বি মাওলানা আহমদ লাটের সঙ্গে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ।
তাবলিগ জামাতের একাংশের শীর্ষ মুরব্বি মাওলানা আহমদ লাটের সঙ্গে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব ইজতেমার ১ম পর্বে অংশ নেয়া তাবলিগ জামাতের একাংশের শীর্ষ মুরব্বি ও বিদেশি মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

প্রতিমন্ত্রী মঙ্গলবার রাতে ঢাকা আশকোনা হজ ক্যাম্পে স্বল্প সময়ের জন্য অবস্থানরত বিশ্ব ইজতেমার ১ম পর্বে আগত বিদেশি মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এ সময় তিনি বিদেশি মেহমানদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে সালাম ও কুশল বিনিময় করে তাদের খোঁজ-খবর নেন।

মতবিনিময়কালে শেখ আব্দুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা আয়োজন আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের বিষয়। তাবলীগ জামাত দ্বীনের মেহনতে নিবেদিত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের নিঃস্বার্থ স্বেচ্ছাশ্রম ও অনুদানে পরিচালিত হয়। সারা পৃথিবীতে ইসলামের প্রচার এবং মানুষকে দ্বীনের পথে দাওয়াতের ক্ষেত্রে তাবলীগ জামাতের খেদমত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাবলীগ জামাতের বিশ্বব্যাপী কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশে বিশ্ব ইজতেমার এত বিশাল বড় আয়োজন করা নিঃসন্দেহে একটি গর্বের বিষয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার দূরদর্শিতা দিয়ে ইসলামের খেদমতে অরাজনৈতিক সংগঠন তাবলীগ জামাতের গুরুত্ব ও তাৎপর্য যথাযথভাবে বুঝতে পেরেছিলেন। একজন সত্যিকারের ঈমানদার হিসেবে বঙ্গবন্ধু তাবলীগ জামাতের দাওয়াতি কাজের সুবিধার্থে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের জন্য বিশাল জায়গা বরাদ্দ করেছিলেন। যার ফলে আজকে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে। তাবলীগ জামাতের মারকাজ এবং মসজিদ নির্মাণের জন্য বঙ্গবন্ধু কাকরাইলেও জমি বরাদ্দ দিয়েছিলেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন ধার্মিক মুসলিম মহীয়সী নারী, তিনি তাবলীগ জামাতের বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক ও বিশেষ অনুরাগী। তিনি বাংলাদেশে সূচারুরূপে ও যথাযোগ্য মর্যাদায় তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক ও সজাগ। সুন্দর, সুষ্ঠু ও নিরাপদে বিশ্ব ইজতেমা ব্যবস্থাপনা করার জন্য তিনি সবাইকে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

তারই নির্দেশে জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের সব সংস্থা অত্যন্ত আন্তরিকতা ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে এ বছরের প্রথম পর্বের ইজতেমা সফলভাবে সম্পন্ন করার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলেন। এর ফলে এবারের বিশ্ব ইজতেমায় স্মরণকালের সবচেয়ে বেশি মুসল্লির সমাবেশ হয়েছে।

তিনি জানান, আগামী ১৭ জানুয়ারি হতে ২য় পর্বেও যাতে মুসল্লিরা নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে ইজতেমায় আসতে পারেন সে জন্য সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এবং ইনশাআল্লাহ অত্যন্ত সুন্দরভাবেই এ বছরের ইজতেমার ২য় পর্বও সফলভাবে সম্পন্ন হবে।

বিদেশি মুসল্লিদের সাক্ষাৎকালে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সব শহীদের আত্মার মাগফিরাত এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুস্থ্যতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া চান।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, তুরস্ক, ইতালী, সৌদি আরবসহ বিভিন্ন দেশের তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীদের সঙ্গে হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশে মতবিনিময় করেন। এ সময় বিদেশি মেহমানগণ সুন্দর ও সফলভাবে বিশ্ব ইজতেমার ১ম পর্ব সম্পন্ন করায় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং সার্বিক ব্যবস্থাপনায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্ব ইজতেমা ২০২০

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×