আইনমন্ত্রী

জামিনের অর্ডার কারাগারে যাওয়ার পরই খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন

প্রকাশ : ১২ মার্চ ২০১৮, ১৫:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ কারাগারে যাওয়ার পরই তিনি মুক্তি পাবেন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

সোমবার দুপুরে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার চার মাসের জামিন মঞ্জুর করেন হাইকোর্ট।

এরপর সচিবালয়ে সাংবাদিকদের কাছে খালেদার জিয়ার রায়ের বিষয়ে আইনমন্ত্রী এ প্রতিক্রিয়া জানান।

বিচার বিভাগ যে স্বাধীনভাবে কাজ করছে, এটা তারই প্রমাণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়টি নিয়ে গড়িমসি করছিল বলে বিএনপি নেতারা অভিযোগ করে আসছিলেন। তবে তাদের এ অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে ভিত্তিহীন। যদি এমন হতো তা হলে খালেদা জিয়া জামিন পেতেন না। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। সরকার কখনও এর মধ্যে হস্তক্ষেপ করেনি।

আনিসুল হক আরও বলেন, বিএনপি নেতারা সারা দেশে বলে বেড়াচ্ছিলেন, আমরা নাকি আদালতে ইন্টারফেয়ার (হস্তক্ষেপ) করছি বলে বেইলটা (জামিন) হচ্ছে না। আজকে প্রমাণিত হলো, বিচার বিভাগ যে স্বাধীন এবং বিচারকাজে সরকার হস্তক্ষেপ করে না।

খালেদা জিয়ার জামিনের আদেশের পর সরকারের পদক্ষেপ কী হবে, সাংবাদিকরা জানতে চাইলে আনিসুল হক বলেন, এটা দুর্নীতি দমন কমিশনের বিষয়। দুর্নীতি দমন আইনে বলা আছে, দুর্নীতি দমন কমিশন হবে পক্ষ, রাষ্ট্র উইল বি দ্য সেকেন্ড পার্ট। তাহলে এখন দাঁড়ায় দুর্নীতি দমন কমিশন বনাম আসামি খালেদা জিয়া। এখন দুর্নীতি দমন কমিশন কী করবেন, সেই সিদ্ধান্ত তারা নেবেন। এটা সরকারের ব্যাপার নয়।

জামিনের আদেশ হলেও তা কারা কর্তৃপক্ষের কাছে না পৌঁছানো পর্যন্ত খালেদা জিয়া মুক্ত হচ্ছেন না বলে স্পষ্ট করেন আইনমন্ত্রী।

তিনি বলেন, যদি (হাইকোর্টের) রিটেন অর্ডার থেকে থাকে, সেক্ষেত্রে সার্টিফায়েড কপি যদি ওনারা বলে থাকেন অ্যাডভান্সড অর্ডারের সার্টিফায়েড কপি চলে যাওয়ার, তাহলে অ্যাডভান্সড অর্ডারের সার্টিফায়েড কপি যাবে। আর যদি উনারা বলে থাকেন আমরা সার্টিফায়েড কপি দিলে পরে, তবে সেই আদেশ যতক্ষণ পর্যন্ত না জেলখানায় পৌঁছে আদালতের মাধ্যমে, ততক্ষণ পর্যন্ত তাকে রিলিজ করা হবে না।