বিধ্বস্ত বিমানের যাত্রীদের তালিকা

  যুগান্তর ডেস্ক    ১২ মার্চ ২০১৮, ২০:৪৬ | অনলাইন সংস্করণ

US Bangla

নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সে যাত্রী ছিলেন মোট ৬৭ জন। এরমধ্যে বাংলাদেশের নাগরিক ৩৩ জন, নেপালের ৩২, মালদ্বীপ ও চীনের নাগরিক ১ জন করে। এখানে যাত্রীদের তালিকা দেয়া হলো:

১. রিজানা আব্দুল্লাহ-মালদ্বীপ

২. ফয়সাল আহমেদ-বাংলাদেশ

৩. শাহরিন আহমেদ-বাংলাদেশ

৪. ইয়াকুব আলী-বাংলাদেশ

৫. আলিফুজ্জামান-বাংলাদেশ

৬. আলমুন্নাহার এ্যানি-বাংলাদেশ

৭. বিলকিস আরা-বাংলাদেশ

৮. শিলা বাজগিন-বাংলাদেশ

৯. হুরুন নাহার বিলকিস-বাংলাদেশ

১০. আলগিনা বড়াল-নেপাল

১১. চারু বড়াল-নেপাল

১২. আকতারা বেগম-বাংলাদেশ

১৩. শাহিন বেপারি-বাংলাদেশ

১৪. সবিন্দ্র বহারা সিং-নেপাল

১৫. বসন্ত বহারা-নেপাল

১৬. সামিরা বাইঝানকার-নেপাল

১৭. প্রবীন চিত্রকার-নেপাল

১৮.নাজিয়া আফরিন চৌধুরী-বাংলাদেশ

১৯. সাজনা দেবকোতা--নেপাল

২০. প্রিন্সি ধামি-নেপাল

২১. কুমারি জ্ঞানী গুরাং-নেপাল

২২. রেজয়োনুল হক-বাংলাদেশ

২৩. রকিবুল হাসান-বাংলাদেশ

২৪. মেহেদী হাসান-বাংলাদেশ

২৫. হাসমি এমরানা- বাংলাদেশ

২৬. কবির হোসেন-বাংলাদেশ

২৭. মুমতাহিন দানিস-বাংলাদেশ

২৮. সানজিদা হক-বাংলাদেশ

২৯. হাসান ইমাম-বাংলাদেশ

৩০. খাইরুল ইসলাম-বাংলাদেশ

৩১. শ্রেয়া ঝা-নেপাল

৩২. পুর্নিমা লোহানি-নেপাল

৩৩. মিলি মহাজন-নেপাল ৩৪. নিজা মহাজন-নেপাল

৩৫. সঞ্জয়া মহাজন-নেপাল

৩৬. ঝাং মিং-চীন

৩৭. আখি মনি-বাংলাদেশ

৩৮. মিনহাজ নাসির-বাংলাদেশ

৩৯. প্রসন্ন পান্ডে-নেপাল

৪০. কেশব পান্ডে-নেপাল

৪১. রাজ বিনো পাডোয়াল

৪২.হরি শঙ্কর পাডোয়াল-নেপাল

৪৩. সঞ্জয় পাডোয়াল-নেপাল

৪৪.পিকে প্রতীক-নেপাল

৪৫. তামারা প্রিয়ন্ময়ী-বাংলাদেশ

৪৬. মতিউর রহমান-বাংলাদেশ

৪৭. এস এম মাহমুদুর রহমান-বাংলাদেশ

৪৮. আশিস রঞ্জিত-বাংলাদেশ

৪৯. তাহিরা তানভীন শশী-বাংলাদেশ

৫০.পিয়াস রয়-বাংলাদেশ

৫১শেখ রুবায়েত রাশেদ-বাংলাদেশ

৫২.কৃষ্ণা সাহানি-নেপাল

৫৩. উম্মে সালমা-নেপাল

৫৪. সাকিয়া আশনা-নেপাল

৫৫.সাকিয়া সানাম-নেপাল

৫৬.আনজিলা শ্রষ্ঠা-নেপাল

৫৭.সারুনা শ্রষ্ঠা-নেপাল

৫৮.কামরুন্নাহার স্বর্ণা-বাংলাদেশ

৫৯.হরি প্রসাদ সুবেদি-নেপাল

৬০.দয়ারাম তামারকার-নেপাল

৬১.বাল কৃষ্ণ থাপা-নেপাল

৬২.শ্বেতা থাপা-নেপাল

৬৩.কিশোর ত্রিপাটি-নেপাল

৬৪.আবদেশ কুমার জাদব-নেপাল

৬৫.অনিরুদ্ধ জামান শিশু-বাংলাদেশ

৬৬.নুরুজ্জামান-বাংলাদেশ

৬৭.রফিকুজ্জামান-বাংলাদেশ

এদিকে নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান দুর্ঘটনার পর সেখানে সব ধরণের বিমান অবতরণ বাতিল করা হয়েছে। নেপালগামী সব বিমানকে অন্যত্র অবতরণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ত্রিভুবন বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে নেপালের সংবাদ মাধ্যম কাঠমান্ডু পোস্ট।

ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস বাংলার একটি বিমান সোমবার কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়। এতে ৬৭ যাত্রী ও ৪ ক্রুর মধ্যে ৫০ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে আল জাজিরা।

কাঠমান্ডু পোস্টের প্রতিবেদনের সূত্র দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনের জানানো হয়েছে, সোমবার দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৭১ যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যায় বিমানটি।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি ইনডিপেন্ডেন্ট স্থানীয় প্রতিনিধির মাধ্যমে জানাচ্ছে, বিমানটি কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে (দুই নং প্ল্যাটফর্ম) থেকে পাশের ফুটবল খেলার মাঠে বিধ্বস্ত হয়।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, প্লেনটি বোম্বার্ডিয়ার ড্যাশ ৮ কিউ৪০০ মডেলের এস২-এজিইউ। বাইরে পাখাবিশিষ্ট এ ধরনের প্লেনে সর্বোচ্চ ৭১টি আসন থাকে।

নেপালের পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব সুরেশ আচার্য্য জানিয়েছেন, প্লেনটিতে ৬৭ আরোহী ছিলেন। দুর্ঘটনাস্থল থেকে ১৭ জনকে উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : নেপালে ইউএস বাংলা বিধ্বস্ত

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: j[email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.