হিয়ার দায়িত্ব কে নেবে?

  রীনা আকতার তুলি ১৩ মার্চ ২০১৮, ২০:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

নিহত নাবিলার শিশুসন্তান হিয়া
নিহত নাবিলার শিশুসন্তান হিয়া

‘মাদকাসক্ত বাবা জেলে। মা শব্দটি ছাড়া এখন আর কোনো কথাই ভালোভাবে বলতে পারে না। সারা দিনই মায়ের জন্য কান্না করে। ওর এখন অন্ধকার ভবিষ্যত। ওর দায়িত্ব কে নেবে?’ -কথাগুলো বলছিলেন নেপালের কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত ইউএস-বাংলা বিমানের কেবিন ক্রু নিহত শারমিন আক্তার নাবিলার মা নীলা জামান।

নাবিলাকে হারিয়ে পুরো পরিবারে এখন চলছে শোকের মাতম। আর নাবিলার একমাত্র মেয়ে ইনায়া ঈমাম হিয়া অপহরণের পর উদ্ধার হয়ে এখন স্বজনদের কাছে। ওর কান্না যেন এক মুহূর্তের জন্য বন্ধ হয় না।মায়ের এই মর্মান্তিক মৃত্যুর কথা তাকে কেউ বলতেও পারছে না।

এর আগে বিমান দুর্ঘটনার দিন কেবিন ক্রু নাবিলার মেয়ের হিয়াকে নিয়ে পালিয়ে যায় কাজের বুয়া। পরে স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ হিয়াকে মিরপুর থেকে উদ্ধার করে। হিয়া এখন তার নানী নীলার কাছে রয়েছে।

যুগান্তরের সঙ্গে কথা বলছেন নীলা জামান।

নীলা জামান বলেন, হিয়া হারিয়ে যাওয়ার পরে আমরা দিশেহারা হয়ে গিয়েছিলাম।এখন হিরা ফিরে আসাতে আমরা কিছুটা শান্তি পেয়েছি।কিন্তু হিয়া বারবার মায়ের (নাবিলা) কথা জিজ্ঞাসা করছে আর কান্না করছে। আমরা ওকে সান্তনা দেয়ার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, উদ্ধার হওয়ার পর থেকে মায়ের জন্য কান্না করছে ওই কোমলমতি শিশু।মায়ের জন্য হিরার কান্না যেন থামছেই না। ওর ব্যথা ভরা চোখ দুটি খুঁজে ফিরছে মাকে।

সাংবাদিকসহ উপস্থিত মানুষের উদ্দেশে হিয়ার নানি বলেন, যা হারিয়েছি, তা আর কোনোদিন ফিরে পাবো না। চিরদিনের জন্য সন্তানকে হারিয়ে ফেললাম। কিন্তু হিয়ার ভবিষ্যত নিয়ে আমরা এখন চিন্তিত। ওর দায়িত্ব নেয়ার মতো কেউ নেই। আপনারা ওর জন্য দোয়া করবেন।

গত সোমবার ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলার একটি বিমান কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়। বিমানের থাকা ৭৮ যাত্রী ও ক্রুর মধ্যে ৫১ জনের মৃত্যুর হয়েছে।সোমবার দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৭৮ যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যায় বিমানটি।

ঘটনাপ্রবাহ : নেপালে ইউএস বাংলা বিধ্বস্ত

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×