২ সিটিতে এমন নির্বাচন চাইনি: সিইসি
jugantor
২ সিটিতে এমন নির্বাচন চাইনি: সিইসি

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:১৭:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন সিইসি কেএম নুরুল হুদা। ছবি-সংগৃহীত

নির্বাচনের প্রথম কয়েক ঘণ্টায় সংঘর্ষ, ককটেল বিস্ফোরণ ও এজেন্টদের বের করে দেয়ার বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএমনুরুল হুদা বলেছেন, ‘এমন ভোট আমরা চাইনি। এখনও চাই না।’

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

সিইসি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আমাদের নির্দেশ, এমন ঘটনা যদি ঘটে তারা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেবে।

নির্বাচনী পরিস্থিতি শান্ত রাখতে প্রার্থী, ভোটার এবং বিভিন্ন প্রার্থীর সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলে, ভোটের পরিবেশ যেন বজায় থাকে। তবে এখন পর্যন্ত ভোটের পরিবেশ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো অভিযোগ পাননি বলে জানান তিনি।

ভোটার উপস্থিতি সম্পর্কে নুরুল হুদা বলেন, সকাল থেকে যা দেখলাম, এখন পর্যন্ত (বেলা সোয়া ১১টা) ভোটার উপস্থিতি ভালো না। দেখলাম এই কেন্দ্রে (উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে) ২৭৬ জন ভোটার এখন পর্যন্ত এসেছে। আশা করছি, পরে আরও আসবে।

তিনি বলেন, সকালের দিকে যে দু-একটি কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি সেখানেও লোকজন কম ছিল।

নূরুল হুদা বলেন, আমরা ভোটের পরিবেশ সৃষ্টি করেছি। আমাদের যে দায়িত্ব সেটা পরিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করেছি-রিটার্নিং অফিসার,

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগসহ সব কিছু। আমাদের দিক থেকে প্রস্তুতির কোনো ঘাটতি নেই। তিনি বলেন, যারা প্রার্থী, নির্বাচনে অংশগ্রহণকরছে ভোটার আনার দায়িত্ব তাদের বেশি।

২ সিটিতে এমন নির্বাচন চাইনি: সিইসি

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৩:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন সিইসি কেএম নুরুল হুদা। ছবি-সংগৃহীত
উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন সিইসি কেএম নুরুল হুদা। ছবি-সংগৃহীত

নির্বাচনের প্রথম কয়েক ঘণ্টায় সংঘর্ষ, ককটেল বিস্ফোরণ ও এজেন্টদের বের করে দেয়ার বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা বলেছেন, ‘এমন ভোট আমরা চাইনি। এখনও চাই না।’

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

সিইসি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আমাদের নির্দেশ, এমন ঘটনা যদি ঘটে তারা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেবে।

নির্বাচনী পরিস্থিতি শান্ত রাখতে প্রার্থী, ভোটার এবং বিভিন্ন প্রার্থীর সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলে, ভোটের পরিবেশ যেন বজায় থাকে। তবে এখন পর্যন্ত ভোটের পরিবেশ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো অভিযোগ পাননি বলে জানান তিনি।

ভোটার উপস্থিতি সম্পর্কে নুরুল হুদা বলেন, সকাল থেকে যা দেখলাম, এখন পর্যন্ত (বেলা সোয়া ১১টা) ভোটার উপস্থিতি ভালো না। দেখলাম এই কেন্দ্রে (উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজে) ২৭৬ জন ভোটার এখন পর্যন্ত এসেছে। আশা করছি, পরে আরও আসবে। 

তিনি বলেন, সকালের দিকে যে দু-একটি কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি সেখানেও লোকজন কম ছিল।

নূরুল হুদা বলেন, আমরা ভোটের পরিবেশ সৃষ্টি করেছি। আমাদের যে দায়িত্ব সেটা পরিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করেছি-রিটার্নিং অফিসার, 

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগসহ সব কিছু। আমাদের দিক থেকে প্রস্তুতির কোনো ঘাটতি নেই। তিনি বলেন, যারা প্রার্থী, নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে ভোটার আনার দায়িত্ব তাদের বেশি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন-২০২০

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০