সাংবাদিক মিজান চৌধুরীর বাবা আর নেই
jugantor
সাংবাদিক মিজান চৌধুরীর বাবা আর নেই

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:০৫:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

দৈনিক যুগান্তরের সিনিয়র রিপোর্টার মিজান চৌধুরীর বাবা, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবির চৌধুরী আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ….রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। শুক্রবার রাতে রাজধানীর হাজারীবাগের নিজ বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

হাজারীবাগে প্রথম জানাজার পর শনিবার সকালে তাকে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়। চার ছেলে, দুই মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ তিনি অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি সাইফুল ইসলাম দিলাল এবং সাধারণ সম্পাদক এসএম রাশিদুল ইসলাম প্রমুখ।

নেতারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

সাংবাদিক মিজান চৌধুরীর বাবা আর নেই

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৫:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দৈনিক যুগান্তরের সিনিয়র রিপোর্টার মিজান চৌধুরীর বাবা, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবির চৌধুরী আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ….রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। শুক্রবার রাতে রাজধানীর হাজারীবাগের নিজ বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

হাজারীবাগে প্রথম জানাজার পর শনিবার সকালে তাকে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়। চার ছেলে, দুই মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ তিনি অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি সাইফুল ইসলাম দিলাল এবং সাধারণ সম্পাদক এসএম রাশিদুল ইসলাম প্রমুখ।

নেতারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।