দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠকে গ্রামীণফোন প্রসঙ্গ

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৩ মার্চ ২০২০, ১৯:৩২:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠক। ছবি: পিআইডি

দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠকে উঠে এসেছে গ্রামীণফোন প্রসঙ্গ। মঙ্গলবার ঢাকায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বাংলাদেশ ও নরওয়ের পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন এবং নরওয়ের পক্ষে দেশটির পররাষ্ট্র সচিব তোরে হাটরেম নেতৃত্ব দেন। বৈঠক শেষে দুই সচিব সাংবাদিকদের সামনে ব্রিফ করেন।

বৈঠক শেষে নরওয়ের পররাষ্ট্র সচিব সাংবাদিকদের বলেন, ‘বৈঠকে গ্রামীণফোন ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সন্তোষজনক উপায়ে এই সমস্যার সমাধান চায় নরওয়ে। বিষয়টি এখন কোর্টে রয়েছে। এই বিষয়ে আমাদের কিছু উদ্বেগ রয়েছে, সেটা আমরা বৈঠকে জানিয়েছি।’

তিনি বলেন, সবার জন্য ভালো এমন সমাধান হলেই ভালো হবে।’

এ বিষয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, গ্রামীণফোনের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছি। ইতিমধ্যে কোর্টের নির্দেশে তারা ১ হাজার কোটি টাকা জমা দিয়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে আরও ১ হাজার কোটি টাকা জমা দেবে। এরপরে কী হবে- সেটি নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। তারা আমাদের কাছে আদালতের রায়ের পূর্ণ কপি চেয়েছেন। আমরা এজন্য অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের সঙ্গে যোগাযোগ করব।

তিনি আরও বলেন, টেলিনর কোম্পানিতে নরওয়েজিয়ান কোম্পানির শেয়ার আছে। সবার জন্য মঙ্গল হয় এমন একটি সমাধান করলে নরওয়ে থেকে আরও বেশি বিনিয়োগ আসবে।

রোহিঙ্গা ইস্যুর প্রসঙ্গে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বী করছে নরওয়ে। তারা আমাদের জানিয়েছে, নির্বাচিত হলে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে তারা আমাদের সহযোগিতা করবে।

বিটিআরসি জানিয়েছে, গ্রামীণফোনের কাছে নিরীক্ষা আপত্তির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকার পাশাপাশি রবির কাছে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে তাদের। কয়েক দফা চেষ্টায় সেই টাকা আদায় করতে না পেরে বিটিআরসি লাইসেন্স বাতিলের হুমকি দিয়ে দুই অপারেটরকে নোটিশ পাঠায়।

বিটিআরসি সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তিতে রাজি না হওয়ায় দুই অপারেটর আদালতের দ্বারস্থ হয়। পরে অর্থমন্ত্রীর উদ্যোগে গ্রামীণফোন ও বিটিআরসির কর্মকর্তাদের মধ্যে দুই দফা বৈঠক হলেও তাতে সফলতা আসেনি।

গ্রামীণফোনের আবেদনে গত বছরের ১৭ অক্টোবর বিটিআরসির নিরীক্ষা আপত্তি দাবির নোটিশের ওপর দুই মাসের নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। বিটিআরসি লিভ টু আপিল করলে আপিল বিভাগ ২৪ নভেম্বর গ্রামীণফোনকে ২ হাজার কোটি টাকা দিতে নির্দেশ দেন।

এরপর গত মাসে গ্রামীণফোন ১ হাজার কোটি টাকা জমা দেয়। তিনমাস পর আরও ১ হাজার কোটি টাকা জমা দেয়া হবে বলেও জানায় তারা।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত