আবারও ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া দম্পতি
jugantor
আবারও ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া দম্পতি

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১১ মার্চ ২০২০, ১৪:২২:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আবারও ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া দম্পতি

জাল টাকা উদ্ধার, অস্ত্র ও মাদকের পৃথক তিন মামলায় নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে মতি সুমনকে ১৫ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম পৃথক তিন মামলায় তাদের বিরুদ্ধে এ রিমান্ডে আবেদন মঞ্জুর করেন।

এদিন পাপিয়া ও তার স্বামী মতি সুমনকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় বিমানবন্দর থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা, শেরেবাংলানগর থানার অস্ত্র ও মাদক মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিন করে ৩০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

২২ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর ফার্মগেটে ইন্দিরা রোডে পাপিয়ার বাসায় অভিযান চালিয়ে ১টি বিদেশি পিস্তল, ২টি ম্যাগাজিন, ২০ রাউন্ড গুলি, ৫ বোতল বিদেশি মদ, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, ৫টি পাসপোর্ট, ৩টি চেক, বেশকিছু বিদেশি মুদ্রা ও বিভিন্ন ব্যাংকের ১০টি এটিএম কার্ড উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারের পর পরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায় বাইজি সর্দারনী বেশে পাপিয়ার অশ্লীল ভিডিও।

সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, পতিতা ব্যবসার পাশাপাশি ব্ল্যাকমেইল করে পাপিয়া ও তার স্বামী গড়ে তুলেছেন সম্পদের পাহাড়। অনৈতিক কার্যকলাপের ভিডিও ধারণ করে ধনাঢ্য ব্যক্তিদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিতেন তারা। অপরাধে জড়িয়ে পড়া পাপিয়াকে ইতোমধ্যে সংগঠন থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের নেতারা বলছেন– পাপিয়ার পাপের শাস্তি তাকে বহিষ্কারের মধ্যেই সীমিত থাকবে না। তার বিচার রাজনৈতিক পরিচয়ে নয়, হবে অপরাধ বিবেচনায়।

এর আগে পাপিয়া ও তার স্বামীকে ১৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন যুব মহিলা লীগের সাবেক এই নেত্রী।

আবারও ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া দম্পতি

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১১ মার্চ ২০২০, ০২:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আবারও ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া দম্পতি
পাপিয়া। ফাইল ছবি

জাল টাকা উদ্ধার, অস্ত্র ও মাদকের পৃথক তিন মামলায় নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে মতি সুমনকে ১৫ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম পৃথক তিন মামলায় তাদের বিরুদ্ধে এ রিমান্ডে আবেদন মঞ্জুর করেন। 

এদিন পাপিয়া ও তার স্বামী মতি সুমনকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় বিমানবন্দর থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা, শেরেবাংলানগর থানার অস্ত্র ও মাদক মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিন করে ৩০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

২২ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর ফার্মগেটে ইন্দিরা রোডে পাপিয়ার বাসায় অভিযান চালিয়ে ১টি বিদেশি পিস্তল, ২টি ম্যাগাজিন, ২০ রাউন্ড গুলি, ৫ বোতল বিদেশি মদ, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, ৫টি পাসপোর্ট, ৩টি চেক, বেশকিছু বিদেশি মুদ্রা ও বিভিন্ন ব্যাংকের ১০টি এটিএম কার্ড উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারের পর পরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায় বাইজি সর্দারনী বেশে পাপিয়ার অশ্লীল ভিডিও। 

সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, পতিতা ব্যবসার পাশাপাশি ব্ল্যাকমেইল করে পাপিয়া ও তার স্বামী গড়ে তুলেছেন সম্পদের পাহাড়। অনৈতিক কার্যকলাপের ভিডিও ধারণ করে ধনাঢ্য ব্যক্তিদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিতেন তারা। অপরাধে জড়িয়ে পড়া পাপিয়াকে ইতোমধ্যে সংগঠন থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের নেতারা বলছেন– পাপিয়ার পাপের শাস্তি তাকে বহিষ্কারের মধ্যেই সীমিত থাকবে না। তার বিচার রাজনৈতিক পরিচয়ে নয়, হবে অপরাধ বিবেচনায়।

এর আগে পাপিয়া ও তার স্বামীকে ১৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন যুব মহিলা লীগের সাবেক এই নেত্রী।

 

ঘটনাপ্রবাহ : পাপের রাজ্যে পাপিয়া