নানা যা খেতেন তাই খেতে জিদ করতাম: জয়

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ মার্চ ২০২০, ১১:০৯:৪৩ | অনলাইন সংস্করণ

সজীব ওয়াজেদ জয়। ফাইল ছবি

বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় তার নানার স্মৃতি রোমন্থন করেছেন। ছোটবেলার নানাকে নিয়ে মজার স্মৃতি এখনও তার মানসপটে ভেসে উঠে। বাল্যকালে নানাকে হারানো এখনও কাঁদায় তাকে।

নানার স্নেহ ও ভালোবাসার কথা স্মরণ সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে নাস্তা করতে ভালোবাসতেন এবং তিনি যা খেতেন তাই খেতে জিদ ধরতেন।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোভিত্তিক রাজনৈতিক সংবাদ এবং অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা বিষয়ক ‘রিয়েল ক্লিয়ার পলিটিক্স’-এ প্রকাশিত এক নিবন্ধে জয় এসব কথা লিখেন।

‘আমি আমার নানার সঙ্গে নাস্তা করতে ভালোবাসতাম। তিনি যা খেতেন তাই খেতে জিদ করতাম।’

এ বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। ১৭ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানমালা। এ বিষয়ে জয় লিখেন, আমার মা (প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা) এবং আমি গোটা জাতির সঙ্গে তা উদযাপন করছি। আমার নানা শেখ মুজিবুর রহমান বঙ্গবন্ধু অথবা ‘ফ্রেন্ড অব বেঙ্গল’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন।’

নিজের পৃথিবীতে আসার কথা উল্লেখ করে জয় লিখেন, ‘বঙ্গবন্ধু ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের নেতৃত্ব দেন। সেই বছরই আমার জন্ম।

তিনি লিখেন, আমার বয়স যখন ৪ বছর তখন আমার নানার প্রত্যাশা প্রায় ধ্বংস করে দেয়া হয়। জাতির জনককে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। সে সময় আমার মা, বাবা, বোন এবং খালাসহ আমরা জার্মানি সফরে ছিলাম। সেনা কর্মকর্তারা আমার নানার বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে এবং তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের হত্যা করে। এরপর একটি বর্বর সামরিক জান্তা রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে।’

জয় লিখেন, ১৯৮১ সাল পর্যন্ত আমার মা ও আমাকে মাতৃভূমিতে আসার অনুমতি দেয়া হয়নি।’

ঘটনাপ্রবাহ : মুজিববর্ষ

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত