করোনাভাইরাস: বিদেশে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের না ফেরার নির্দেশ
jugantor
করোনাভাইরাস: বিদেশে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের না ফেরার নির্দেশ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২১ মার্চ ২০২০, ২২:০১:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রশিক্ষণ ও উচ্চ শিক্ষার্থে বিদেশে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের আপাতত দেশে না ফেরার নির্দেশ দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। সেই সঙ্গে এসব কর্মকর্তাকে যে দেশে আছেন সেই দেশের কোয়ারেন্টিন নীতিমালা মেনে চলার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে। এতে বলা হয়- জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এবং আওতাধীন দফতর বা সংস্থার যেসব কর্মকর্তা বিদেশে বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণ অথবা উচ্চশিক্ষার জন্য প্রেষণ বা অধ্যয়ন ছুটিতে আছেন, তাদের অবস্থানরত দেশের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত কোয়ারেন্টিন নীতিমালা অনুসরণ করে চলাফেরা এবং দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

এছাড়া বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বৈদেশিক প্রশিক্ষণ বা উচ্চশিক্ষা সংক্রান্ত কোনো বিষয়ে দিকনির্দেশনা বা মতামত প্রয়োজন হলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তিনজন কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগের জন্য বলা হয়েছে।

তারা হলেন- জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব (বিদেশ প্রশিক্ষণ শাখা) মু. ইকরামুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী সচিব (বিদেশ প্রশিক্ষণ-২ শাখা) মুহাম্মদ আবদুল হাই মিলটন ও উপসচিব (পরিকল্পনা-২ শাখা) এসএম আবদুল­াহ আল মামুন। এছাড়া সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ বজায় রাখার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন সাংবাদিকদের বলেন, অনেক সরকারি কর্মকর্তা বিদেশে পিএইচডি ও মাস্টার্স করছেন। অনেকে বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণেও বিদেশে আছেন। যাদের শিক্ষা ছুটি ও প্রশিক্ষণের মেয়াদ শেষ হয়েছে, আমরা তাদের বলেছি, আপাতত দেশে ফেরা যাবে না। আপনারা যেখানে আছেন, সেখানে অবস্থান করেন। অবস্থান করার এ সময়টুকু আমরা বর্ধিত করে দেব, প্রয়োজনে ছুটি বাড়ানো হবে। সেজন্য আমরা তাদের যোগাযোগের জন্য বলেছি।

করোনাভাইরাস: বিদেশে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের না ফেরার নির্দেশ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২১ মার্চ ২০২০, ১০:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রশিক্ষণ ও উচ্চ শিক্ষার্থে বিদেশে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের আপাতত দেশে না ফেরার নির্দেশ দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। সেই সঙ্গে এসব কর্মকর্তাকে যে দেশে আছেন সেই দেশের কোয়ারেন্টিন নীতিমালা মেনে চলার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে। এতে বলা হয়- জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এবং আওতাধীন দফতর বা সংস্থার যেসব কর্মকর্তা বিদেশে বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণ অথবা উচ্চশিক্ষার জন্য প্রেষণ বা অধ্যয়ন ছুটিতে আছেন, তাদের অবস্থানরত দেশের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত কোয়ারেন্টিন নীতিমালা অনুসরণ করে চলাফেরা এবং দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

এছাড়া বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বৈদেশিক প্রশিক্ষণ বা উচ্চশিক্ষা সংক্রান্ত কোনো বিষয়ে দিকনির্দেশনা বা মতামত প্রয়োজন হলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তিনজন কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগের জন্য বলা হয়েছে।

তারা হলেন- জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব (বিদেশ প্রশিক্ষণ শাখা) মু. ইকরামুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী সচিব (বিদেশ প্রশিক্ষণ-২ শাখা) মুহাম্মদ আবদুল হাই মিলটন ও উপসচিব (পরিকল্পনা-২ শাখা) এসএম আবদুল­াহ আল মামুন। এছাড়া সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ বজায় রাখার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন সাংবাদিকদের বলেন, অনেক সরকারি কর্মকর্তা বিদেশে পিএইচডি ও মাস্টার্স করছেন। অনেকে বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণেও বিদেশে আছেন। যাদের শিক্ষা ছুটি ও প্রশিক্ষণের মেয়াদ শেষ হয়েছে, আমরা তাদের বলেছি, আপাতত দেশে ফেরা যাবে না। আপনারা যেখানে আছেন, সেখানে অবস্থান করেন। অবস্থান করার এ সময়টুকু আমরা বর্ধিত করে দেব, প্রয়োজনে ছুটি বাড়ানো হবে। সেজন্য আমরা তাদের যোগাযোগের জন্য বলেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস