স্বামী-সন্তানের মৃত্যু বিশ্বাস করছেন না অ্যানি

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ মার্চ ২০১৮, ১৯:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

আহত অ্যানি

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় আহত গাজীপুরের আলমুন নাহার অ্যানি। গত শুক্রবার যে তিনজন বাংলাদেশিকে নেপাল থেকে ফিরিয়ে এনে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয় তাদের একজন তিনি।

সোমবার বিকালে হাসপাতাল ছাড়েন অ্যানি। এরপর বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শ্রীপুরের গ্রামের বাড়ি নগরহাওলায় পৌঁছান তিনি।

সেখানে তাকে তার স্বামী ফারুক আহমেদ প্রিয়ক ও মেয়ে তামাররা প্রিয়ন্ময়ীর মৃত্যু সংবাদ দেয়া হলে তিনি কিছুতেই তা বিশ্বাস করতে চাইছেন না।

এ সময় অ্যানি বলেন, আপনারা মিথ্যা বলছেন। ওরা বেঁচে আছে। ওদের আমি দেখতে চাই।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নিহত প্রিয়কের মামাতো ভাই সানি আহমেদ জানান, বাড়িতে পৌঁছানোর প্রায় ২০ মিনিট পর অ্যানিকে তার স্বামী ও মেয়ের নিহতের খবর জানান তার বান্ধবী রাবেয়া আক্তার রাবু।

সানি আরও জানান, কিন্তু অ্যানি তার স্বামী সন্তান নিহত হয়েছে তা বিশ্বাস করেনি। একপর্যায়ে তিনি তার স্বামী সন্তানের লাশ দেখতে চান।

এর আগে, কাঠমান্ডু মেডিকেল কলেজ থেকে বের হওয়ার সময়ও অ্যানি জানতে চেয়েছিল তার স্বামী ও সন্তান কোথায়। ওকে বলা হয়েছিল, উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের সিঙ্গাপুর নেয়া হয়েছে।

ইউএস-বাংলার বিমানে মেহেদীর সঙ্গে নেপাল যাচ্ছিলেন ফারুক আহমেদ প্রিয়ক ও তার স্ত্রী আনমুন নাহার অ্যানি এবং তাদের আড়াই বছরের শিশুসন্তান তামান্না প্রিয়ম্মী। তারা পাশাপাশি সিটে বসেছিলেন। বিমান দুর্ঘটনায় ফারুক আহমেদ প্রিয়ক ও তার শিশুসন্তান তামান্না মারা যান।

ঘটনাপ্রবাহ : নেপালে ইউএস বাংলা বিধ্বস্ত

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter