মসজিদ বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান তাবলিগ জামাতের
jugantor
মসজিদ বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান তাবলিগ জামাতের

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ এপ্রিল ২০২০, ১৭:১৪:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ। ফাইল ছবি

করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে মসজিদে না গিয়ে মুসল্লিদের ঘরে নামাজ পড়ার যে নির্দেশনা সরকার দিয়েছে, সেটিকে স্বাগত জানিয়েছে তাবলিগ জামাত। এ নির্দেশনা যথাযথভাবে দেশের সব মুসলমান ও তাবলিগ জামাতের সাথীদের মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

সোমবার কাকরাইল মসজিদের শীর্ষ মুরুব্বি, তাবলীগ জামাত বাংলাদেশের আহলে শুরা প্রফেসর ইউনুস শিকদার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

এতে বলা হয়, যেসব জামাত দেশের বিভিন্ন স্থানে ১ চিল্লা ও ৩ চিল্লার জন্য আল্লাহর রাস্তায় সফর করছে, সে সব জামাতের সাথীরা এখন থেকে নিজ নিজ বাড়িতে ফিরে যাবে। এক্ষেত্রে প্রশাসনের সহযোগিতা নিতেও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

দেশের সব জেলার তাবলিগের আমির, আহলে শুরা ও দায়িত্বশীলদের উদ্দেশ্যে পাঠানো ওই চিঠিতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশিকা ও সিদ্ধান্তের আলোকে চলার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সোমবার মসজিদের ক্ষেত্রে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেম ছাড়া অন্য সব মুসল্লিকে সরকারের পক্ষ থেকে নিজ নিজ বাসায় নামাজ আদায় করতে নির্দেশ দেয়া হয়। এছাড়া জুমার জামাতে অংশগ্রহণের পরিবর্তে ঘরে জোহরের নামাজ আদায়ের নির্দেশ দেয়া হয়।

এতে আরও বলা হয়, মসজিদে জামাত চালু রাখার প্রয়োজনে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেমরা মিলে পাঁচ ওয়াক্তের নামাজ অনধিক পাঁচ জন এবং জুমার জামাতে অনধিক ১০ জন শরিক হতে পারবেন। বাইরের মুসল্লি মসজিদে জামাতে অংশ নিতে পারবেন না।

এ ছাড়া সারাদেশে ওয়াজ মাহফিল, তাফসির মাহফিল, তাবলিগি তালিম বা মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা যাবে না বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

মসজিদ বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান তাবলিগ জামাতের

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ এপ্রিল ২০২০, ০৫:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ। ফাইল ছবি
বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ। ফাইল ছবি

করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে মসজিদে না গিয়ে মুসল্লিদের ঘরে নামাজ পড়ার যে নির্দেশনা সরকার দিয়েছে, সেটিকে স্বাগত জানিয়েছে তাবলিগ জামাত। এ নির্দেশনা যথাযথভাবে দেশের সব মুসলমান ও তাবলিগ জামাতের সাথীদের মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।   

সোমবার কাকরাইল মসজিদের শীর্ষ মুরুব্বি, তাবলীগ জামাত বাংলাদেশের আহলে শুরা প্রফেসর ইউনুস শিকদার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়।   

এতে বলা হয়, যেসব জামাত দেশের বিভিন্ন স্থানে ১ চিল্লা ও ৩ চিল্লার জন্য আল্লাহর রাস্তায় সফর করছে, সে সব জামাতের সাথীরা এখন থেকে নিজ নিজ বাড়িতে ফিরে যাবে।  এক্ষেত্রে  প্রশাসনের সহযোগিতা নিতেও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

দেশের সব জেলার তাবলিগের আমির, আহলে শুরা ও দায়িত্বশীলদের উদ্দেশ্যে পাঠানো ওই চিঠিতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশিকা ও সিদ্ধান্তের আলোকে চলার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়।   

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সোমবার মসজিদের ক্ষেত্রে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেম ছাড়া অন্য সব মুসল্লিকে সরকারের পক্ষ থেকে নিজ নিজ বাসায় নামাজ আদায় করতে নির্দেশ দেয়া হয়।  এছাড়া জুমার জামাতে অংশগ্রহণের পরিবর্তে ঘরে জোহরের নামাজ আদায়ের নির্দেশ দেয়া হয়। 

এতে আরও বলা হয়, মসজিদে জামাত চালু রাখার প্রয়োজনে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেমরা মিলে পাঁচ ওয়াক্তের নামাজ অনধিক পাঁচ জন এবং জুমার জামাতে অনধিক ১০ জন শরিক হতে পারবেন। বাইরের মুসল্লি মসজিদে জামাতে অংশ নিতে পারবেন না।

এ ছাড়া সারাদেশে ওয়াজ মাহফিল, তাফসির মাহফিল, তাবলিগি তালিম বা মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা যাবে না বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

২০ অক্টোবর, ২০২১