বিপুল পরিমাণ নকল ‘স্যাভলন’ পণ্য জব্দ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ মে ২০২০, ২০:৩০:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এই সময়ে মানুষের প্রধান চাহিদা জীবাণুনাশক পণ্য।

অথচ এই মহামারীর মধ্যেই এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী স্বনামধন্য ‘স্যাভলন’ ব্র্যান্ডের মত করে বিভিন্ন মানহীন, নকল পণ্য বাজারজাত করার চেষ্টা করছে।

এই অসাধু ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা করছে অনেক ফার্মেসির দোকানদার, ডিপার্টমেন্টাল স্টোর ও মুদি দোকানের ব্যবসায়ীরা। এই ধরনের অসাধু ব্যবসায়ীরা নকল ও মানহীন পণ্য নিজেদের দোকানে রাখছেন এবং ক্রেতাদের কাছে বিক্রির মাধ্যমে সরাসরি তাদেরকে প্রতারিত করছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্য ফেসবুকের বিভিন্ন পেজের মাধ্যমেও বিক্রি হচ্ছে নকল এসব পণ্য।

এসব অসাধু ব্যবসায়ী ও খুচরা বিক্রেতার বিরুদ্ধে অভিযানে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সম্প্রতি চাঁদপুর জেলার ডিবি পুলিশ একটি বাসার সন্ধান পায় যেখানে নকল ‘স্যাভলন’ ব্র্যান্ডের পণ্য মজুত করে রাখা হয়েছিল। এ সময় কলিম নামের একজনকে আটক করা হয়।

অভিযানে এক লিটারের ৫০০ কন্টেইনার ভেজাল ও নকল স্যাভলন, ৫০০ পিস হ্যান্ডওয়াশ ও স্যানিটাইজার জব্দ করা হয়। এই ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এই ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

সংশোধন:


সংবাদ বিজ্ঞপ্তির ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি লেখা হয়েছিল। এতে মানহীন–নকল পণ্যের মধ্যে কোভ্লন নামটির উল্লেখ ছিল। কোভ্লন কোনো নকল পণ্য নয়। এটি বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদন পাওয়া একটি জীবানুনাশক। এই অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য আমরা দুঃখিত।

এছাড়া উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, 'কোভ্লন' কেমিকো ফার্মাসিউটিক্যালস্ লিমিটেড উৎপাদন ও বাজারজাত করে। এ বিষয়ে জনসাধারণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য প্রতিষ্ঠানটি অনুরোধ করেছে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত