কুয়েতের নাগরিক হলে পাপুলের এমপি পদ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ জুলাই ২০২০, ১৫:৫৩:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল কুয়েতের নাগরিকত্ব নিয়ে থাকলে তার আসন শূন্য ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, এই বিষয়ে তদন্ত চলছে। নিয়মানুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বুধবার জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ রিজেন্ট হাসপাতালের জালিয়াতি, এমপি শহিদ ইসলামের কুয়েতে গ্রেফতার ও ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের বিষয়ে বক্তৃতা করেন। এ বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীরও বক্তব্য দাবি করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে কুয়েতের নাগরিক কী না… সেটা কিন্তু কুয়েতের সঙ্গে আমরা কথা বলছি, সেটা দেখব। আর যদি এটা হয়, তাহলে তার ওই সিট হয়ত খালি করিয়ে দিতে হবে। কারণ যেটা আইনে আছে সেটা হবে। তার বিরুদ্ধে আমরা এখানেও তদন্ত করছি।

অর্থ ও মানবপাচারের অভিযোগে পাপুলকে গত ৬ জুন রাতে কুয়েতের মুশরিফ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। মারাফি কুয়েতিয়া কোম্পানির অন্যতম মালিক পাপুলের সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি রয়েছে।

পাচারের শিকার পাঁচ বাংলাদেশির অভিযোগের ভিত্তিতে পাপুলের বিরুদ্ধে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের শোষণের অভিযোগ এনেছে কুয়েতি কৌঁসুলিরা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে (পাপুল) কিন্তু স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য। সে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আমাদের (আওয়ামী লীগের) নমিনেশন চেয়েছিল, আমি দিইনি। কিন্তু সে স্বতন্ত্র ইলেকশন করেছে।

‘ওই সিটটি আমরা জাতীয় পার্টিকে দিয়ে দিয়েছিলাম। জাতীয় পার্টির নোমান (মোহাম্মদ নোমান) নমিনেশন পেয়েছিলেন, কিন্তু নির্বাচন করেননি। সেখানে ওই লোক (পাপুল) জিতে আসেন। আবার তার ওয়াইফকেও যেভাবে হোক (সংরক্ষিত আসনের এমপি) বানায়। কাজেই এটা কিন্তু আমাদের করা না।’

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত