পর্নো-জুয়ার ২৬ হাজার সাইট বন্ধ 
jugantor
পর্নো-জুয়ার ২৬ হাজার সাইট বন্ধ 

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৩ জুলাই ২০২০, ১৩:৩৫:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

পর্নো-জুয়ার ২৬ হাজার সাইট বন্ধ 
ফাইল ছবি

ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সংঘটিত অপরাধ প্রতিরোধে ২২ হাজার পর্নোসাইট ও চার হাজার জুয়ার সাইট বন্ধ করছে সরকার। এ তথ্য জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। 

তিনি রোববার ডিজিটাল প্ল্যাটফরমে ঢাকায় লিগ্যাল কাউন্সিল আয়োজিত ডাটা প্রটেকশন অ্যান্ড প্রাইভেসি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ তথ্য জানান।
 
মোস্তাফা জব্বার বলেন, ডিজিটাল অপরাধ এবং তা মোকাবেলা একেবারেই নতুন ধারণা। পরিবর্তিত পরিস্থিতির গুরুত্ব বিবেচনায় সরকার ২০১৮ সালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণয়ন করেছে। প্রযুক্তিগত অপরাধের বিষয়ে মানুষের মধ্যে এরই মধ্যে সচেতনতা বেড়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী এ বিষয়ে অত্যন্ত সচেষ্ট হওয়ায় অপরাধের মাত্রাও উল্লেখযোগ্য হারে কমছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ অর্জিত হওয়ার কারণে মহামারীকালে গৃহবন্দি থেকেও মানুষ ডিজিটাল প্রযুক্তির কারণে মুক্তজীবনের স্বাদ পাচ্ছে। প্রযুক্তির অপরাধ প্রযুক্তি দিয়ে মোকাবেলা করার সক্ষমতা অর্জনেও আমরা পিছিয়ে নেই।

অনুষ্ঠানে বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাদির কামাল, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির এবং লিগ্যাল কাউন্সিলের কর্মকর্তারা বক্তৃতা দেন।

 

 

পর্নো-জুয়ার ২৬ হাজার সাইট বন্ধ 

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৩ জুলাই ২০২০, ০১:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পর্নো-জুয়ার ২৬ হাজার সাইট বন্ধ 
ফাইল ছবি

ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সংঘটিত অপরাধ প্রতিরোধে ২২ হাজার পর্নোসাইট ও চার হাজার জুয়ার সাইট বন্ধ করছে সরকার। এ তথ্য জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি রোববার ডিজিটাল প্ল্যাটফরমে ঢাকায় লিগ্যাল কাউন্সিল আয়োজিত ডাটা প্রটেকশন অ্যান্ড প্রাইভেসি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ তথ্য জানান।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ডিজিটাল অপরাধ এবং তা মোকাবেলা একেবারেই নতুন ধারণা। পরিবর্তিত পরিস্থিতির গুরুত্ব বিবেচনায় সরকার ২০১৮ সালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণয়ন করেছে। প্রযুক্তিগত অপরাধের বিষয়ে মানুষের মধ্যে এরই মধ্যে সচেতনতা বেড়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী এ বিষয়ে অত্যন্ত সচেষ্ট হওয়ায় অপরাধের মাত্রাও উল্লেখযোগ্য হারে কমছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ অর্জিত হওয়ার কারণে মহামারীকালে গৃহবন্দি থেকেও মানুষ ডিজিটাল প্রযুক্তির কারণে মুক্তজীবনের স্বাদ পাচ্ছে। প্রযুক্তির অপরাধ প্রযুক্তি দিয়ে মোকাবেলা করার সক্ষমতা অর্জনেও আমরা পিছিয়ে নেই।

অনুষ্ঠানে বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাদির কামাল, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির এবং লিগ্যাল কাউন্সিলের কর্মকর্তারা বক্তৃতা দেন।