রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলায় গাম্বিয়ার পাশে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস
jugantor
রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলায় গাম্বিয়ার পাশে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস

  অনলাইন ডেস্ক  

০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:২৬:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে গাম্বিয়ার দায়ের করা রোহিঙ্গা গণহত্যা সংক্রান্ত মামলায় যুক্ত হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস।

বুধবার কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাসোঁয়া ফিলিপে শ্যাম্পে ও নেদারল্যান্ডসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টেফ ব্লক এক যৌথ বিবৃতিতে একথা জানান।

রোহিঙ্গা গণহত্যাবিষয়ক মামলায় সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য কানাডা ও নেদারল্যান্ডসের আগ্রহ প্রকাশ করায় মামলাটি নতুন করে গতি পাবে।

বিবৃতিতে মন্ত্রীদ্বয় বলেন, গণহত্যা কনভেনশন মেনে নেয়া দেশগুলোর গণহত্যা ঠেকানোই শুধু উদ্দেশ্য নয় বরং যারা এর জন্য দায়ী তাদেরকে দায়বদ্ধতার মধ্যে আনাটাও তাদের দায়িত্ব।

গাম্বিয়াকে সমর্থন দেয়ার জন্য গণহত্যা কনভেনশন মেনে নেয়া দেশগুলোকে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস পুনরায় আহ্বান জানায় এ বিবৃতিতে।

মিয়ানমারের গণহত্যাকারীদের শাস্তির আওতায় আনতে গাম্বিয়া অত্যন্ত প্রশংসনীয় কাজ করেছে বলেও দাবি করে। এ কাজে সহায়তা করা দায়িত্ব মনে করে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, আইনি বিষয়ে দেশ দুটি সহায়তা করবে এবং বিশেষ করে যৌন নিপীড়ন ও নারী নির্যাতনের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দেবে।

গত বছর রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানো হয়েছে এ মর্মে গাম্বিয়া আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করে।

উভয়পক্ষের শুনানির পরে গত জানুয়ারি মাসে আদালত একটি অন্তবর্তীকালীন আদেশ দেয়। আদেশে মিয়ানমারকে গণহত্যা বন্ধের জন্য পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়।

রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলায় গাম্বিয়ার পাশে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস

 অনলাইন ডেস্ক 
০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:২৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে গাম্বিয়ার দায়ের করা রোহিঙ্গা গণহত্যা সংক্রান্ত মামলায় যুক্ত হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস। 

বুধবার কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাসোঁয়া ফিলিপে শ্যাম্পে ও নেদারল্যান্ডসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টেফ ব্লক এক যৌথ বিবৃতিতে একথা জানান। 

রোহিঙ্গা গণহত্যাবিষয়ক মামলায় সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য কানাডা ও নেদারল্যান্ডসের আগ্রহ প্রকাশ করায় মামলাটি নতুন করে গতি পাবে। 

বিবৃতিতে মন্ত্রীদ্বয় বলেন, গণহত্যা কনভেনশন মেনে নেয়া দেশগুলোর গণহত্যা ঠেকানোই শুধু উদ্দেশ্য নয় বরং যারা এর জন্য দায়ী তাদেরকে দায়বদ্ধতার মধ্যে আনাটাও তাদের দায়িত্ব। 

গাম্বিয়াকে সমর্থন দেয়ার জন্য গণহত্যা কনভেনশন মেনে নেয়া দেশগুলোকে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস পুনরায় আহ্বান জানায় এ বিবৃতিতে।

মিয়ানমারের গণহত্যাকারীদের শাস্তির আওতায় আনতে গাম্বিয়া অত্যন্ত প্রশংসনীয় কাজ করেছে বলেও দাবি করে। এ কাজে সহায়তা করা দায়িত্ব মনে করে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস। 

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, আইনি বিষয়ে দেশ দুটি সহায়তা করবে এবং বিশেষ করে যৌন নিপীড়ন ও নারী নির্যাতনের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দেবে।

গত বছর রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানো হয়েছে এ মর্মে গাম্বিয়া আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করে। 

উভয়পক্ষের শুনানির পরে গত জানুয়ারি মাসে আদালত একটি অন্তবর্তীকালীন আদেশ দেয়। আদেশে মিয়ানমারকে গণহত্যা বন্ধের জন্য পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। 
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

আরও খবর