আল্লামা শফী: পদ থেকে সরে যাওয়ার একদিন পরই মৃত্যু
jugantor
আল্লামা শফী: পদ থেকে সরে যাওয়ার একদিন পরই মৃত্যু

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:৫৫:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী। ফাইল ছবি

হাটহাজারী মাদ্রাসার মুহতামিম বা মহাপরিচালকের পদ থেকে সরে যাওয়ার একদিন পরই আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রামের মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালকের পদ থেকে স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন হেফাজত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

রাত ১০ টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসার শুরা সদস্য ও নানুপুর মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা সালাউদ্দিন এ ঘোষণা পাঠ করে শোনান।

ঘোষণায় বলা হয়, মুহতামিম বা মহাপরিচালকের পদ থেকে সরে যাওয়ায় আল্লামা শফীকে সদরে মুহতামিম বা উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এদিকে পদত্যাগ করার পর আল্লামা শাহ আহমদ শফী অসুস্থ হয়ে পড়েন। পড়ে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে আইসিইউ ভর্তি করা হয়েছিল। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ার পর শুক্রবার বিকালে তাকে ঢাকায় আনার পরই তার মৃত্যু হয়।

হেফাজতের আমির আল্লামা শফীর স্মৃতিচারণ করে তার সাবেক প্রেস সচিব মাওলানা মুনির আহমেদ যুগান্তরকে বলেন, আমি ১৯৯৫ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ওনার সঙ্গে ছিলাম। হুজুর অত্যন্ত সহজ, সরল ছিলেন। ব্যক্তি জীবনে খুবই কর্তব্যনিষ্ঠ ছিলেন। ঈমান-আক্বীদার বিষয়ে ছিলেন আপোষহীন। তার সবচেয়ে বড় গুণ ছিল তিনি অর্থনৈতিক লেনদেনে খুবই স্বচ্ছ ছিলেন। কখনও বাইরে গেলে মাদ্রাসা আসার পর প্রথমেই হিসাব বিভাগে ঢুকতেন। তিনি সবার আগে হিসাব দেয়ার পর অন্য বিভাগে যেতেন।

আল্লামা শফী: পদ থেকে সরে যাওয়ার একদিন পরই মৃত্যু

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী। ফাইল ছবি
হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী। ফাইল ছবি

হাটহাজারী মাদ্রাসার মুহতামিম বা মহাপরিচালকের পদ থেকে সরে যাওয়ার একদিন পরই আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রামের মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালকের পদ থেকে স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন হেফাজত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

রাত ১০ টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসার শুরা সদস্য ও নানুপুর মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা সালাউদ্দিন এ ঘোষণা পাঠ করে শোনান।

ঘোষণায় বলা হয়, মুহতামিম বা মহাপরিচালকের পদ থেকে সরে যাওয়ায় আল্লামা শফীকে সদরে মুহতামিম বা উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এদিকে পদত্যাগ করার পর আল্লামা শাহ আহমদ শফী অসুস্থ হয়ে পড়েন। পড়ে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে আইসিইউ ভর্তি করা হয়েছিল। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ার পর শুক্রবার বিকালে তাকে ঢাকায় আনার পরই তার মৃত্যু হয়।

হেফাজতের আমির আল্লামা শফীর স্মৃতিচারণ করে তার সাবেক প্রেস সচিব মাওলানা মুনির আহমেদ যুগান্তরকে বলেন,  আমি ১৯৯৫ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ওনার সঙ্গে ছিলাম। হুজুর অত্যন্ত সহজ, সরল ছিলেন। ব্যক্তি জীবনে খুবই কর্তব্যনিষ্ঠ ছিলেন। ঈমান-আক্বীদার বিষয়ে ছিলেন আপোষহীন। তার সবচেয়ে বড় গুণ ছিল তিনি অর্থনৈতিক লেনদেনে খুবই স্বচ্ছ ছিলেন। কখনও বাইরে গেলে মাদ্রাসা আসার পর প্রথমেই হিসাব বিভাগে ঢুকতেন। তিনি সবার আগে হিসাব দেয়ার পর অন্য বিভাগে যেতেন।

 

 

 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আল্লামা শফী আর নেই

আরও খবর