পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেবে গ্রিন লাইন 
jugantor
পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেবে গ্রিন লাইন 

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬:০৫:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেবে গ্রিন লাইন 

দুই বছর আগে রাজধানীর মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে বাসের চাপায় পা হারানো রাসেল সরকারকে আরও ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে গ্রিন লাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ।


বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহসান ও বিচাপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার গ্রিন লাইন পরিবহনের সম্মতির ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত দেন।


রাসেল সরকারকে কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার প্রশ্নে এর আগে হাইকোর্ট যে রুল জারি করেছিলেন, তার নিষ্পত্তি করেই এ রায় এলো।


আদালত বলেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে ওই ২০ লাখ টাকা পরিশোধ করতে হবে গ্রিন লাইন কর্তৃপক্ষকে। তাদের সম্মতির ভিত্তিতে এই রায় হওয়ায় এর বিরুদ্ধে আর আপিল হবে না বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন।


এর আগে তিন দফায় রাসেলকে মোট সাড়ে ১৩ লাখ টাকা দিয়েছিল গ্রিন লাইন কর্তৃপক্ষ। হাইকোর্টের রায়ের ফলে সব মিলিয়ে তিনি পাবেন সাড়ে ৩৩ লাখ টাকা।


রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় রাসেল বলেন, যে অর্থটা হাইকোর্ট আমাকে দিয়েছেন, সেটা দিয়ে আমার সন্তানদের মানুষের মতো মানুষ করার চেষ্টা করব।


ওই ২০ লাখ টাকা ব্যাংকে রেখে যে সুদ পাওয়া যাবে, তা দিয়ে সংসার চালানোর কথা ভাবছেন রাসেল। অথবা ওই সুদের টাকা দিয়ে যদি কিছু জমি বর্গা নিতে পারেন, সেখান থেকে হয়তো কিছু ধান পাবেন।


‘যেহেতু কিছু করতে পারব না, এভাবেই চলতে হবে আমাকে। এভাবেই বাকি জীবনটা চালিয়ে নিতে হবে’-যোগ করেন রাসেল।


মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে ২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল গ্রিন লাইন পরিবহনের ধাক্কায় মারাত্মক আহত হন গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার পার্বতীপুর গ্রামের মো. শফিকুল আসলামের ছেলে রাসেল সরকার।


হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একপর্যায়ে তার একটি পা কেটে ফেলতে হয়। তার আরেক পায়ের অবস্থাও ভালো নয়।

পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেবে গ্রিন লাইন 

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেবে গ্রিন লাইন 
ফাইল ছবি

দুই বছর আগে রাজধানীর মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে বাসের চাপায় পা হারানো রাসেল সরকারকে আরও ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে গ্রিন লাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ।


বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহসান ও বিচাপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার গ্রিন লাইন পরিবহনের সম্মতির ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত দেন।


রাসেল সরকারকে কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার প্রশ্নে এর আগে হাইকোর্ট যে রুল জারি করেছিলেন, তার নিষ্পত্তি করেই এ রায় এলো।


আদালত বলেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে ওই ২০ লাখ টাকা পরিশোধ করতে হবে গ্রিন লাইন কর্তৃপক্ষকে। তাদের সম্মতির ভিত্তিতে এই রায় হওয়ায় এর বিরুদ্ধে আর আপিল হবে না বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন।


এর আগে তিন দফায় রাসেলকে মোট সাড়ে ১৩ লাখ টাকা দিয়েছিল গ্রিন লাইন কর্তৃপক্ষ। হাইকোর্টের রায়ের ফলে সব মিলিয়ে তিনি পাবেন সাড়ে ৩৩ লাখ টাকা।


রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় রাসেল বলেন, যে অর্থটা হাইকোর্ট আমাকে দিয়েছেন, সেটা দিয়ে আমার সন্তানদের মানুষের মতো মানুষ করার চেষ্টা করব।


ওই ২০ লাখ টাকা ব্যাংকে রেখে যে সুদ পাওয়া যাবে, তা দিয়ে সংসার চালানোর কথা ভাবছেন রাসেল। অথবা ওই সুদের টাকা দিয়ে যদি কিছু জমি বর্গা নিতে পারেন, সেখান থেকে হয়তো কিছু ধান পাবেন।   


‘যেহেতু কিছু করতে পারব না, এভাবেই চলতে হবে আমাকে। এভাবেই বাকি জীবনটা চালিয়ে নিতে হবে’-যোগ করেন রাসেল। 


মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে ২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল গ্রিন লাইন পরিবহনের ধাক্কায় মারাত্মক আহত হন গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার পার্বতীপুর গ্রামের মো. শফিকুল আসলামের ছেলে রাসেল সরকার।


হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একপর্যায়ে তার একটি পা কেটে ফেলতে হয়। তার আরেক পায়ের অবস্থাও ভালো নয়।