তাকসিমের পুনঃনিয়োগ আটকানোর রিট খারিজ
jugantor
তাকসিমের পুনঃনিয়োগ আটকানোর রিট খারিজ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৮ অক্টোবর ২০২০, ১৪:১৪:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা ওয়াসার এমডি পদে ষষ্ঠ দফায় প্রকৌশলী তাকসিম এ খানের পুনঃনিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে যে রিট আবেদনটি হয়েছিল, তা খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রোববার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই আবেদন ‘উত্থাপিত হয়নি’ মর্মে খারিজ করে দেন।

আদালতে রিটকারী পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস কাজল, তানভীর আহমেদ ও আব্দুলল্লাহ আবু সাঈদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নূর উস সাদিক।

আইনজীবী তানভীর পরে সাংবাদিকদের বলেন, গত বুধবার শুনানির পর আজ আদেশের জন্য ছিল। আদালত রিট আবেদনটি সরাসরি খারিজ করে দিতে চাইলে আমি বলেছি যে, রুল ইস্যু না করলে আবেদনটি ‘নট প্রেসড’ করতে চাই। পরে আদালত আবেদনটি ‘নট প্রেসড রিজেক্ট’ করে দিয়েছেন।

কোনো রিট আবেদন সরাসরি খারিজ হয়ে গেলে একই আবেদন নিয়ে হাইকোর্টের কোন্য কোনো বেঞ্চে যাওয়া যায় না। তবে আদালত তা ‘উত্থাপিত হয়নি’ মর্মে খারিজ করলে অন্য বেঞ্চে যাওয়ার সুযোগ থাকে।

প্রকৌশলী তাকসিম এ খান ২০০৯ সালে প্রথম ঢাকা ওয়াসার এমডি হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর ৬ষ্ঠ দফা তার চুক্তির মেয়াদ বাড়ায় ওয়াসা বোর্ড।

নতুন করে আরও ৩ বছরের জন্য তাকসিম এ খান ওয়াসার এমডি হওয়ার খবরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ সর্বত্র ব্যাপক সমালোচনা হয়।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর ঢাকা ওয়াসা বোর্ড সভায় তাকসিম এ খানকে আরও তিন বছরের জন্য এমডি পদে নিয়োগের প্রস্তাব চূড়ান্ত করা হলে তা চ্যালেঞ্জ করে ২৪ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে এই রিট আবেদন করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের বাসিন্দা প্রকৌশলী খন্দকার মঞ্জুর মোরশেদ।

এ বিষয়ে শুনানি হওয়ার আগেই গত ১ অক্টোবর তাকসিমের পুনঃনিয়োগের প্রস্তাব অনুমোদন করে সরকার। এরপর ওই অনুমোদনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আরেকটি সম্পূরক আবেদন করেন রিট আবেদনকারী।

গত ১৪ অক্টোবর শুনানির পর আদালত রোববার হাইকোর্ট বেঞ্চ তা ‘উত্থাপিত হয়নি’ মর্মে খারিজ করে আদেশ দিল।

তাকসিমের পুনঃনিয়োগ আটকানোর রিট খারিজ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৮ অক্টোবর ২০২০, ০২:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা ওয়াসার এমডি পদে ষষ্ঠ দফায় প্রকৌশলী তাকসিম এ খানের পুনঃনিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে যে রিট আবেদনটি হয়েছিল, তা খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রোববার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই আবেদন ‘উত্থাপিত হয়নি’ মর্মে খারিজ করে দেন। 

আদালতে রিটকারী পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস কাজল, তানভীর আহমেদ ও আব্দুলল্লাহ আবু সাঈদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নূর উস সাদিক।

আইনজীবী তানভীর পরে সাংবাদিকদের বলেন, গত বুধবার শুনানির পর আজ আদেশের জন্য ছিল। আদালত রিট আবেদনটি সরাসরি খারিজ করে দিতে চাইলে আমি বলেছি যে, রুল ইস্যু না করলে আবেদনটি ‘নট প্রেসড’ করতে চাই। পরে আদালত আবেদনটি ‘নট প্রেসড রিজেক্ট’ করে দিয়েছেন।

কোনো রিট আবেদন সরাসরি খারিজ হয়ে গেলে একই আবেদন নিয়ে হাইকোর্টের কোন্য কোনো বেঞ্চে যাওয়া যায় না। তবে আদালত তা ‘উত্থাপিত হয়নি’ মর্মে খারিজ করলে অন্য বেঞ্চে যাওয়ার সুযোগ থাকে।

প্রকৌশলী তাকসিম এ খান ২০০৯ সালে প্রথম ঢাকা ওয়াসার এমডি হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর ৬ষ্ঠ দফা তার চুক্তির মেয়াদ বাড়ায় ওয়াসা বোর্ড। 

নতুন করে আরও ৩ বছরের জন্য তাকসিম এ খান ওয়াসার এমডি হওয়ার খবরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ সর্বত্র ব্যাপক সমালোচনা হয়। 

গত ১৯ সেপ্টেম্বর ঢাকা ওয়াসা বোর্ড সভায় তাকসিম এ খানকে আরও তিন বছরের জন্য এমডি পদে নিয়োগের প্রস্তাব চূড়ান্ত করা হলে তা চ্যালেঞ্জ করে ২৪ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে এই রিট আবেদন করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের বাসিন্দা প্রকৌশলী খন্দকার মঞ্জুর মোরশেদ।

এ বিষয়ে শুনানি হওয়ার আগেই গত ১ অক্টোবর তাকসিমের পুনঃনিয়োগের প্রস্তাব অনুমোদন করে সরকার। এরপর ওই অনুমোদনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আরেকটি সম্পূরক আবেদন করেন রিট আবেদনকারী।

গত ১৪ অক্টোবর শুনানির পর আদালত রোববার হাইকোর্ট বেঞ্চ তা ‘উত্থাপিত হয়নি’ মর্মে খারিজ করে আদেশ দিল।