স্বাধীনতা পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী
jugantor
স্বাধীনতা পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৫:০৫:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাধীনতা পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী

নয় বিশিষ্ট ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকে চলতি বছরের স্বাধীনতা পুরস্কার দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক পুরস্কারে ভূষিতদের হাতে এ পদক তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে এবং জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল অবদানের জন্য মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত কমান্ডার আবদুর রউফ ও শহীদ বুদ্ধিজীবী মুহম্মদ আনোয়ার পাশাসহ ৯ ব্যক্তি এবং ভারতেশ্বরী হোমসকে দেয়া হলো এবারের স্বাধীনতা পুরস্কার।

কমান্ডার (অব.) আবদুর রউফ ও লেখক-অধ্যাপক আনোয়ার পাশা ছাড়াও স্বাধীনতা এবং মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী ও আজিজুর রহমানকে বেসামরিক সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা দেয়া হয়েছে।

চিকিৎসা বিদ্যায় অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কবীর চৌধুরী এবং অধ্যাপক ডা. একেএমএ মুকতাদিরকে দেয়া হয়েছে এ পুরস্কার।

এ ছাড়া সংস্কৃতিতে কালীপদ দাস ও অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার এবং শিক্ষায় ভারতেশ্বরী হোমসকে এ পদক দেয়া হয়েছে এ বছর।

প্রতিবছর ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের আগের দিন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ এ বেসামরিক পুরস্কার বিতরণ করা হলেও বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে এবার সেই অনুষ্ঠান স্থগিত হয়ে গিয়েছিল।

সাত মাস পর আজ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

এ বছর কারা স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন, সেই নাম মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ঘোষণা করেছিল গত ২০ ফেব্রুয়ারি। পরে একটি নাম বাদ দিয়ে ১২ মার্চ সংশোধিত তালিকা প্রকাশ করা হয়।

২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সরকার ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতি বছর এ পুরস্কার দিয়ে আসছে।

পুরস্কারজয়ী প্রত্যেকে পেয়েছেন ১৮ ক্যারেট মানের ৫০ গ্রাম ওজনের একটি স্বর্ণপদক, পাঁচ লাখ টাকার চেক ও একটি সম্মাননাপত্র।


স্বাধীনতা পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৩:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
স্বাধীনতা পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী
ফাইল ছবি

নয় বিশিষ্ট ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকে চলতি বছরের স্বাধীনতা পুরস্কার দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক পুরস্কারে ভূষিতদের হাতে এ পদক তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানে অংশ নেন। 

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে এবং জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল অবদানের জন্য মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত কমান্ডার আবদুর রউফ ও শহীদ বুদ্ধিজীবী মুহম্মদ আনোয়ার পাশাসহ ৯ ব্যক্তি এবং ভারতেশ্বরী হোমসকে দেয়া হলো এবারের স্বাধীনতা পুরস্কার।

কমান্ডার (অব.) আবদুর রউফ ও লেখক-অধ্যাপক আনোয়ার পাশা ছাড়াও স্বাধীনতা এবং মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী ও আজিজুর রহমানকে বেসামরিক সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা দেয়া হয়েছে। 

চিকিৎসা বিদ্যায় অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কবীর চৌধুরী এবং অধ্যাপক ডা. একেএমএ মুকতাদিরকে দেয়া হয়েছে এ পুরস্কার।

এ ছাড়া সংস্কৃতিতে কালীপদ দাস ও অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার এবং শিক্ষায় ভারতেশ্বরী হোমসকে এ পদক দেয়া হয়েছে এ বছর।

প্রতিবছর ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের আগের দিন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ এ বেসামরিক পুরস্কার বিতরণ করা হলেও বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে এবার সেই অনুষ্ঠান স্থগিত হয়ে গিয়েছিল। 

সাত মাস পর আজ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। 

এ বছর কারা স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন, সেই নাম মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ঘোষণা করেছিল গত ২০ ফেব্রুয়ারি। পরে একটি নাম বাদ দিয়ে ১২ মার্চ সংশোধিত তালিকা প্রকাশ করা হয়। 

২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সরকার ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতি বছর এ পুরস্কার দিয়ে আসছে।

পুরস্কারজয়ী প্রত্যেকে পেয়েছেন ১৮ ক্যারেট মানের ৫০ গ্রাম ওজনের একটি স্বর্ণপদক, পাঁচ লাখ টাকার চেক ও একটি সম্মাননাপত্র।