জিপিআই’র বাংলাদেশের সমন্বয়ক হলেন পলাশ মাহমুদ
jugantor
জিপিআই’র বাংলাদেশের সমন্বয়ক হলেন পলাশ মাহমুদ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৫ নভেম্বর ২০২০, ১৭:১১:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সাংবাদিক পলাশ মাহমুদ

বিশ্বজুড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করা যুক্তরাজ্যভিত্তিক ‘থিংক ট্যাংক’ প্রতিষ্ঠান ‘গ্লোবাল পিস ইনস্টিটিউট’ (জিপিআই) এর বাংলাদেশের সমন্বয়ক (কান্ট্রি কোঅর্ডিনেটর) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ভোক্তা অধিকার সংস্থা ‘কনসাস কনজুমার্স সোসাইটি’ (সিসিএস) এর নির্বাহী পরিচালক ও সাংবাদিক পলাশ মাহমুদ।

বুধবার জিপিআই’র প্রেসিডেন্ট ক্লিফোর্ড জেম্স গিয়ার ইমেইলের মাধ্যমে তাকে এ নিয়োগপত্র পাঠান। ওই নিয়োগ আগামী দুই বছরের জন্য কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন পলাশ মাহমুদ।

জিপিআই বিশ্বের ৭০টি দেশে সুশাসন ও শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং মানবাধিকার রক্ষায় গবেষণামূলক ও থিংক ট্যাংক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে। প্রতিষ্ঠানটি যুক্তরাজ্য সরকার কর্তৃক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা হিসেবে নিবন্ধিত।

উল্লেখ্য, পলাশ মাহমুদ বর্তমানে ‘ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ সোসাইটি’ (আইওয়াইএস) এর বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর, থাইল্যান্ডের ও-ইয়েস ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর, সুইডেনভিত্তিক ওয়ার্ল্ড পিস কনফারেন্সের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

গত বছর তিনি দিল্লিত ‘আন্তর্জাতিক যুব সম্মাননা’ পুরস্কার ও থাইল্যান্ডের ও-ইয়েস ফাউন্ডেশনের সেরা কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর পুরস্কার পান। এর আগে ২০১৭ সালে তিনি নেপালে সম্মাননা পান।

পলাশ মাহমুদ বর্তমানে দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের অনলাইনের ইনচার্জ হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

২০১৯ সালে মে মাসে ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্যের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে সিসিএসের পক্ষে পলাশ মাহমুদ রিট পিটিশন দায়ের করেন। ওই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে নামিদামি কোম্পানির ৫২টি পণ্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করে তা বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। তখন বিষয়টি দেশে ব্যাপক আলোচিত হয়। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও খবর প্রকাশিত হয়।

পলাশ মাহমুদ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে স্নাতক (২০১১) ও স্নাতকোত্তর (২০১৩) সম্পন্ন করেন। ছাত্রজীবনে তিনি মিস্টার হিস্ট্রি, বিভাগীয় ছাত্রসংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেনারেল সেক্রেটারি (জিএস) নির্বাচিত হন। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক ও সভাপতি (২০১১) হিসেবে নির্বাচিত হন।

জিপিআই’র বাংলাদেশের সমন্বয়ক হলেন পলাশ মাহমুদ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৫:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সাংবাদিক পলাশ মাহমুদ
সাংবাদিক পলাশ মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বজুড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করা যুক্তরাজ্যভিত্তিক ‘থিংক ট্যাংক’ প্রতিষ্ঠান ‘গ্লোবাল পিস ইনস্টিটিউট’ (জিপিআই) এর বাংলাদেশের সমন্বয়ক (কান্ট্রি কোঅর্ডিনেটর) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ভোক্তা অধিকার সংস্থা ‘কনসাস কনজুমার্স সোসাইটি’ (সিসিএস) এর নির্বাহী পরিচালক ও সাংবাদিক পলাশ মাহমুদ।

বুধবার জিপিআই’র প্রেসিডেন্ট ক্লিফোর্ড জেম্স গিয়ার ইমেইলের মাধ্যমে তাকে এ নিয়োগপত্র পাঠান। ওই নিয়োগ আগামী দুই বছরের জন্য কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন পলাশ মাহমুদ। 

জিপিআই বিশ্বের ৭০টি দেশে সুশাসন ও শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং মানবাধিকার রক্ষায় গবেষণামূলক ও থিংক ট্যাংক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে। প্রতিষ্ঠানটি যুক্তরাজ্য সরকার কর্তৃক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা হিসেবে নিবন্ধিত।

উল্লেখ্য, পলাশ মাহমুদ বর্তমানে ‘ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ সোসাইটি’ (আইওয়াইএস) এর বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর, থাইল্যান্ডের ও-ইয়েস ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর, সুইডেনভিত্তিক ওয়ার্ল্ড পিস কনফারেন্সের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

গত বছর তিনি দিল্লিত ‘আন্তর্জাতিক যুব সম্মাননা’ পুরস্কার ও থাইল্যান্ডের ও-ইয়েস ফাউন্ডেশনের সেরা কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর পুরস্কার পান। এর আগে ২০১৭ সালে তিনি নেপালে সম্মাননা পান। 

পলাশ মাহমুদ বর্তমানে দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের অনলাইনের ইনচার্জ হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

২০১৯ সালে মে মাসে ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্যের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে সিসিএসের পক্ষে পলাশ মাহমুদ রিট পিটিশন দায়ের করেন। ওই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে নামিদামি কোম্পানির ৫২টি পণ্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করে তা বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। তখন বিষয়টি দেশে ব্যাপক আলোচিত হয়। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও খবর প্রকাশিত হয়।

পলাশ মাহমুদ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে স্নাতক (২০১১) ও স্নাতকোত্তর (২০১৩) সম্পন্ন করেন। ছাত্রজীবনে তিনি মিস্টার হিস্ট্রি, বিভাগীয় ছাত্রসংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেনারেল সেক্রেটারি (জিএস) নির্বাচিত হন। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক ও সভাপতি (২০১১) হিসেবে নির্বাচিত হন।