রাবি সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগের নিন্দা বিএইচআরডিএফের 
jugantor
রাবি সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগের নিন্দা বিএইচআরডিএফের 

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৫৪:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মর্তুজা নূর

সংবাদ প্রকাশের জের ধরে বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রতিনিধি মর্তুজা নূরের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করার নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডার ফোরামের (বিএইচআরডিএফ) রাজশাহী জেলা ককাস।

রোববার জেলা ককাসের সাধারণ সম্পাদক রিমন রহমান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই নিন্দা প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, গণমাধ্যম সব সময় সমাজের দর্পণ হিসেবে কাজ করে। যা ঘটে গণমাধ্যম তাই প্রকাশ করে। প্রকাশিত সংবাদে বিভ্রান্তিকর তথ্য থাকলে তিনি লিখিতভাবে প্রতিবাদ জানাতে পারেন। গণমাধ্যমে তার ব্যাখাও প্রকাশ করা হয়। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলেও অভিযোগ করা যেতে পারে। কিন্তু সেটি না করে একজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

বিএইচআরডিএফের জেলা ককাস আশা করে, অভিযোগকারী শিক্ষক দ্রুত সময়ের মধ্যেই তার অভিযোগ প্রত্যাহার করবেন।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক মর্তুজা নূর বিএইচআরডিএফের জেলা ককাসের নির্বাহী সদস্য। ২৪ নভেম্বর বাংলাদেশ প্রতিদিনে তিনি ‘রাবিতে বিধিলঙ্ঘন করে শিক্ষিকাকে পদোন্নতি দেয়ায় আইইআর পরিচালকের পদত্যাগ’ শীর্ষক একটি সংবাদ প্রকাশ করেন। সংবাদটি মিথ্যা, বিদ্বেষপ্রসূত ও হীন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত দাবি করে রাবি স্কুল ও কলেজের শিক্ষক রুনা লায়লা ২৭ নভেম্বর রাতে রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানায় সাংবাদিক নূরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

রাবি সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগের নিন্দা বিএইচআরডিএফের 

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মর্তুজা নূর
মর্তুজা নূর। ছবি-যুগান্তর

সংবাদ প্রকাশের জের ধরে বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রতিনিধি মর্তুজা নূরের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করার নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডার ফোরামের (বিএইচআরডিএফ) রাজশাহী জেলা ককাস। 

রোববার জেলা ককাসের সাধারণ সম্পাদক রিমন রহমান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই নিন্দা প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, গণমাধ্যম সব সময় সমাজের দর্পণ হিসেবে কাজ করে। যা ঘটে গণমাধ্যম তাই প্রকাশ করে। প্রকাশিত সংবাদে বিভ্রান্তিকর তথ্য থাকলে তিনি লিখিতভাবে প্রতিবাদ জানাতে পারেন। গণমাধ্যমে তার ব্যাখাও প্রকাশ করা হয়। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলেও অভিযোগ করা যেতে পারে। কিন্তু সেটি না করে একজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

বিএইচআরডিএফের জেলা ককাস আশা করে, অভিযোগকারী শিক্ষক দ্রুত সময়ের মধ্যেই তার অভিযোগ প্রত্যাহার করবেন।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক মর্তুজা নূর বিএইচআরডিএফের জেলা ককাসের নির্বাহী সদস্য। ২৪  নভেম্বর বাংলাদেশ প্রতিদিনে তিনি ‘রাবিতে বিধিলঙ্ঘন করে শিক্ষিকাকে পদোন্নতি দেয়ায় আইইআর পরিচালকের পদত্যাগ’ শীর্ষক একটি সংবাদ প্রকাশ করেন। সংবাদটি মিথ্যা, বিদ্বেষপ্রসূত ও হীন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত দাবি করে রাবি স্কুল ও কলেজের শিক্ষক রুনা লায়লা ২৭ নভেম্বর রাতে রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানায় সাংবাদিক নূরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।