শীতে রোহিঙ্গাদের জন্য উপহার পাঠাল তুরস্ক
jugantor
শীতে রোহিঙ্গাদের জন্য উপহার পাঠাল তুরস্ক

  অনলাইন ডেস্ক  

২৯ নভেম্বর ২০২০, ২১:০৫:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

রোহিঙ্গাদের কম্বল সরবরাহ করছে তুরস্ক।

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য শীতের উপহার পাঠিয়েছে তুরস্ক।রোববার আঙ্কারার রাষ্ট্রীয় সাহায্য সংস্থা জানিয়েছে, বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান করা ৫ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে।

তুর্কি সহযোগিতা ও সমন্বয় সংস্থা (টিআইকিএ) এর বাংলাদেশ সমন্বয়কারী ইসমাইল গুন্ডোগদু আনাদোলু এজেন্সিকে বলেন, রোহিঙ্গা মুসলিমদের শীতের উপহারের অংশ হিসেবে আমারা পাঁচ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছি। আমরা নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের পুরো শীত মৌসুমে আমাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখব। বাংলাদেশে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে শীতের তীব্র আক্রমণ হবে।

স্থানীয় ও রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, শীত মৌসুমে বাংলাদেশের দক্ষিণপূর্ব এলাকায় থাকা বেশি রোহিঙ্গাদের ওপর প্রভাব পরতে পারে।

ইসমাইল গুন্ডোগদু আরও বলেছেন, ২০১৭ সালের আগস্ট মাস থেকে বড় আকারে রোহিঙ্গা সংকট শুরু হয়েছে। টিআইকেএ এসব রাষ্ট্রহীন ব্যক্তিদের সহযোগিতার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

এছাড়া টিআইকেএ-এর পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারকে ৫ দিন ব্যাপী খাদ্য সহযোগিতাও করেছে।

শীতে রোহিঙ্গাদের জন্য উপহার পাঠাল তুরস্ক

 অনলাইন ডেস্ক 
২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৯:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রোহিঙ্গাদের কম্বল সরবরাহ করছে তুরস্ক।
রোহিঙ্গাদের কম্বল সরবরাহ করেছে তুরস্ক। ছবি: ইয়েনি শাফাক

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য শীতের উপহার পাঠিয়েছে তুরস্ক।রোববার আঙ্কারার রাষ্ট্রীয় সাহায্য সংস্থা জানিয়েছে, বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান করা ৫ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। 

তুর্কি সহযোগিতা ও সমন্বয় সংস্থা (টিআইকিএ) এর বাংলাদেশ সমন্বয়কারী ইসমাইল গুন্ডোগদু আনাদোলু এজেন্সিকে বলেন, রোহিঙ্গা মুসলিমদের শীতের উপহারের অংশ হিসেবে আমারা পাঁচ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছি। আমরা নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের পুরো শীত মৌসুমে আমাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখব। বাংলাদেশে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে শীতের তীব্র আক্রমণ হবে। 

স্থানীয় ও রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, শীত মৌসুমে বাংলাদেশের দক্ষিণপূর্ব এলাকায় থাকা বেশি রোহিঙ্গাদের ওপর প্রভাব পরতে পারে।   

ইসমাইল গুন্ডোগদু আরও বলেছেন, ২০১৭ সালের আগস্ট মাস থেকে বড় আকারে রোহিঙ্গা সংকট শুরু হয়েছে। টিআইকেএ এসব রাষ্ট্রহীন ব্যক্তিদের সহযোগিতার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।  

এছাড়া টিআইকেএ-এর পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারকে ৫ দিন ব্যাপী খাদ্য সহযোগিতাও করেছে। 

 

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা