ঢাকা–জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন চালু ২৬ মার্চ
jugantor
ঢাকা–জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন চালু ২৬ মার্চ

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫:৫৫:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি থেকে ঢাকার পথে নতুন একটি ১০ বগির যাত্রীবাহী ট্রেন চালু হচ্ছে। এটি হবে দুদেশের মধ্যে তৃতীয় যাত্রীবাহী ট্রেন। ৫১৩ কিলোমিটার দূরত্বে সপ্তাহান্তে এই ট্রেন চলবে।

বুধবার দুই দেশের রেল কর্মকর্তাদের বৈঠক শেষে ভারতের রেলওয়ের কাটিহার ডিভিশনের ডিআরএম (ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার) রবীন্দ্র কুমার ভার্মা সাংবাদিকদের এ কথা জানান। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

এর আরে মৈত্রী এক্সপ্রেস ঢাকা টু কলকাতা পথে চলাচল শুরু করে। পরে খুলনা টু কলকাতা পথে বাধন এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু করে। এছাড়া ভারতের হলদিবাড়ি থেকে বাংলাদেশের চিলাহাটি পর্যন্ত ট্রেন চলাচল শুরুর প্রক্রিয়া চলছে।

রবীন্দ্র কুমার ভার্মা এ বিষয়ে বলেন, প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবর্ষকে সামনে রেখে নতুন করে পশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি বা এনজেপি থেকে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট পর্যন্ত এই রেল পরিসেবা শুরু হচ্ছে।

নিউ জলপাইগুড়ি থেকে ঢাকার দূরত্ব ৫১৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে বাংলাদেশ অংশে রয়েছে ৪৪৬ কিলোমিটার। ভারতের অংশে রয়েছে ৮৪ কিলোমিটার। এই দীর্ঘপথে থাকছে উভয় দেশের ১৫টি স্টেশন। তবে কোনো স্টেশনে ট্রেনটি দাঁড়াবে না।

ঢাকা–জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন চালু ২৬ মার্চ

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৩:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি থেকে ঢাকার পথে নতুন একটি ১০ বগির যাত্রীবাহী ট্রেন চালু হচ্ছে। এটি হবে দুদেশের মধ্যে তৃতীয় যাত্রীবাহী ট্রেন। ৫১৩ কিলোমিটার দূরত্বে সপ্তাহান্তে এই ট্রেন চলবে।

বুধবার দুই দেশের রেল কর্মকর্তাদের বৈঠক শেষে ভারতের রেলওয়ের কাটিহার ডিভিশনের ডিআরএম (ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার) রবীন্দ্র কুমার ভার্মা সাংবাদিকদের এ কথা জানান। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

এর আরে মৈত্রী এক্সপ্রেস ঢাকা টু কলকাতা পথে চলাচল শুরু করে। পরে খুলনা টু কলকাতা পথে বাধন এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু করে। এছাড়া ভারতের হলদিবাড়ি থেকে বাংলাদেশের চিলাহাটি পর্যন্ত ট্রেন চলাচল শুরুর প্রক্রিয়া চলছে।

রবীন্দ্র কুমার ভার্মা  এ বিষয়ে বলেন, প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবর্ষকে সামনে রেখে নতুন করে পশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি বা এনজেপি থেকে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট পর্যন্ত এই রেল পরিসেবা শুরু হচ্ছে। 

নিউ জলপাইগুড়ি থেকে ঢাকার দূরত্ব ৫১৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে বাংলাদেশ অংশে রয়েছে ৪৪৬ কিলোমিটার। ভারতের অংশে রয়েছে ৮৪ কিলোমিটার। এই দীর্ঘপথে থাকছে উভয় দেশের ১৫টি স্টেশন। তবে কোনো স্টেশনে ট্রেনটি দাঁড়াবে না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন