আলজাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে কেউ প্রশ্ন তোলেনি
jugantor
আলজাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে কেউ প্রশ্ন তোলেনি

  অনলাইন ডেস্ক  

০১ মার্চ ২০২১, ২০:১৪:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

কেউ আলজাজিরার প্রতিবেদন বা মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলেনি বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরে সেই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, কয়েকজন কংগ্রেসম্যান এবং জাতিসংঘ মহাসচিবসহ অনেকের সাথে বৈঠক হয়েছে। কোনো বৈঠকে কেউ আলজাজিরার প্রতিবেদন বা মুশতাক আহমেদের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলেনি। শুধু যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকারী বাংলাদেশি সংবাদকর্মীরাই এসব নিয়ে প্রশ্ন করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে সোমবার (১ মার্চ) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে কিছু হলেই, বিদেশি দূতাবাসগুলো উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দেয়, যেগুলো বন্ধ হওয়া উচিত।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন দেশে হত্যাকাণ্ডসহ নানা ঘটনা ঘটে, বাংলাদেশ বা অন্য দেশ সেগুলো নিয়ে নাক গলায় না। কিন্তু বাংলাদেশে কিছু ঘটলে বিদেশি দূতাবাস কী বলে সেদিকে তাকিয়ে থাকে গণমাধ্যম। এই সংস্কৃতি বন্ধের আহ্বান জানান তিনি।

আলজাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে কেউ প্রশ্ন তোলেনি

 অনলাইন ডেস্ক 
০১ মার্চ ২০২১, ০৮:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। ফাইল ছবি

কেউ আলজাজিরার প্রতিবেদন বা মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলেনি বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরে সেই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, কয়েকজন কংগ্রেসম্যান এবং জাতিসংঘ মহাসচিবসহ অনেকের সাথে বৈঠক হয়েছে। কোনো বৈঠকে কেউ আলজাজিরার প্রতিবেদন বা মুশতাক আহমেদের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলেনি। শুধু যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকারী বাংলাদেশি সংবাদকর্মীরাই এসব নিয়ে প্রশ্ন করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে সোমবার (১ মার্চ) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে কিছু হলেই, বিদেশি দূতাবাসগুলো উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দেয়, যেগুলো বন্ধ হওয়া উচিত। 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন দেশে হত্যাকাণ্ডসহ নানা ঘটনা ঘটে, বাংলাদেশ বা অন্য দেশ সেগুলো নিয়ে নাক গলায় না। কিন্তু বাংলাদেশে কিছু ঘটলে বিদেশি দূতাবাস কী বলে সেদিকে তাকিয়ে থাকে গণমাধ্যম। এই সংস্কৃতি বন্ধের আহ্বান জানান তিনি।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন