রুয়েট শিক্ষক হাসির অবস্থা স্থিতিশীল

সিঙ্গাপুরে কবিরের আরেক পা কেটে ফেলা হলো

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৬:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

আহত কবির হোসেন
আহত কবির হোসেন

নেপালে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় আহত হয়ে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন কবির হোসেনের বাঁ পা কেটে ফেলা হয়েছে।

বুধবার সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে তার অস্ত্রোপচার করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে যুগান্তরকে এ তথ্য জানান ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।

তিনি বলেন, গতকাল কবিরের আরেকটি পা কেটে ফেলা হয়েছে। তবে তার অবস্থা এখন অনেক ভালো।

এর আগে গত ২৬ মার্চ একই হাসপাতালে কবির হোসেনের ডান পায়ের অর্ধেকটা কেটে ফেলা হয়।

সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় আহত আরেক বাংলাদেশি এমরানা কবির হাসি।

রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-রুয়েটের এ সহকারী অধ্যাপকের বাঁ হাতের পাঁচটি আঙুল কেটে ফেলা হয়েছে। তার অবস্থা উন্নতির দিকে।

ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কবির ও হাসি পুরোপুরি সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তাদের যাতে দেশে না আনা হয় তার জন্য বলা হয়েছে। তারা সুস্থ হয়ে সিঙ্গাপুর থেকে সরাসরি বাড়িতে ফিরবেন।

গত ১২ মার্চ নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে অবতরণের সময় দুর্ঘটনার মুখে পড়ে বিধ্বস্ত হয় ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া বেসরকারি ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট।

এতে বিমানটিতে থাকা ৭১ আরোহীর মধ্যে ৫১ যাত্রী নিহত হন। এর মধ্যে ২৬ বাংলাদেশি রয়েছেন। এতে আহত হন ১০ বাংলাদেশি।

আহতদের অন্যতম কবির হোসেনের বাড়ি মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায়। তিনি প্রসাধনী সামগ্রীর ব্যবসায় জড়িত ছিলেন।

দুর্ঘটনার পর কবিরকে কাঠমান্ডুতে চিকিৎসার পর তাকে দেশে ফিরিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র-আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল।

অবস্থার অবনতি হওয়ায় গত ২৬ মার্চ উন্নত চিকিৎসার জন্য কবির হোসেনকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়।

এদিকে ইউএস-বাংলার ওই ফ্লাইটে থাকা দম্পতি প্রকৌশলী রাকিবুল হাসান ও রুয়েট শিক্ষক এমরানা কবির হাসিও দুর্ঘটনায় পড়েন।

এর মধ্যে ঘটনাস্থলেই রাকিবুল মারা যান। অন্যদিকে হাসির ফুসফুসসহ শরীরের ৩৫ শতাংশ পুড়ে যায়।

হাসিকে প্রথমে কাঠমান্ডু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

পরে পরিবার ও রুয়েটের সাবেক শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘রিওসা’র আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ১৮ মার্চ শিক্ষক হাসিকে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়। সেখানে তাকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রিওসার সহদফতর সম্পাদক প্রকৌশলী মোহাম্মদ মনির হোসেন যুগান্তরকে বলেন, হাসিকে সিঙ্গাপুর নেয়ার পর এখন তার শারীরিক অবস্থা অনেকটা ভালো।

তিনি জানান, হাসির বাম হাতের পাঁচটি আঙুল কেটে ফেলা হয়েছে। তিনি এখনও হাত ভালোভাবে নাড়াতে পারছেন না। তার ডানহাতও অনেকটা ভেঙে গেছে।

সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিশেষজ্ঞ মি. চং এর বরাত দিয়ে মনির হোসেন বলেন, ডান হাতের আঘাতটা অনেক বেশি। অপারেশনের মাধ্যমে এর ভালো চিকিৎসা প্রয়োজন। যদি তা না করা হয় তাহলে চিরদিনের জন্য হাতটা তিনি হারাতে পারেন।

মনির হোসেন আরও বলেন, সবদিক বিবেচনা করলে হাসি এখনো পুরোপুরি সুস্থ নন। তিনি ভালোভাবে নড়াচড়াও করতে পারছেন না।

সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ২৫ এপ্রিল হাসিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে হস্তান্তর করবে বলে মৌখিকভাবে বলেছিল।

তবে হাসির সর্বশেষ অবস্থা বিশ্লেষণ করে তারা এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন বলে জানান মনির হোসেন।

SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"event";s:[0-9]+:"নেপালে ইউএস বাংলা বিধ্বস্ত".*')) AND id<>39975 ORDER BY id DESC

ঘটনাপ্রবাহ : নেপালে ইউএস বাংলা বিধ্বস্ত

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter