কোটার ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধাদের মহাসমাবেশে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত দেবেন

প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ২১:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

  পাবনা ও সুজানগর প্রতিনিধি

মুক্তিযোদ্ধাবিষয়কমন্ত্রী  আ ক ম মোজম্মেল হক সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা বাতিল প্রসঙ্গে বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারের সদস্যদের জন্য চাকরিতে যে কোটা ব্যবস্থা ছিল সে ব্যাপারে ঢাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের মহাসমাবেশে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত দেবেন।

তিনি বলেন, দেশের প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধা বিনা খরচে শতভাগ চিকিৎসাসেবা পাবেন এবং এই সেবা আগামী এক মাসের মধ্যেই চালু করা হবে।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার পাবনার সুজানগরে শহীদ দুলাল উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সারা বাংলাদেশে একই ডিজাইনে দেশের বিভিন্ন স্থানের বধ্যভূমি ও মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্থানসমূহ সংরক্ষণ করা হবে। যেসব মুক্তিযোদ্ধার ঘর নেই তাদের জন্য থাকার ব্যবস্থা করা হবে। আগামী প্রজন্ম যাতে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে যুগ যুগ ধরে ধারণা লাভ করতে পারে এ জন্য দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রেকর্ড করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজিৎ দেবনাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় স্থানীয় এমপি খন্দকার আজিজুল হক আরজু, স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড ও মাছরাঙা টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা অঞ্জন চৌধরী পিন্টু, পাবনার জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন,পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির,উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল কাদের রোকন, পৌর মেয়র আব্দুল ওহাব, পাবনা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার হাবিবুর রহমান হাবিব, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি তোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সিরাজুল ইসলাম শাহজাহান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম বাবলু, এস এম শামছুল আলম, আবদুল হাই, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শিবলী সাদিক প্রমুখ বক্তব্য দেন।

উপজেলা প্রকৌশলী সফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ও এলজিইডি এর বাস্তবায়নে দুই কোটি পাঁচ লাখ ৩০ হাজার ৯৮৬ টাকা ব্যয়ে এটি নির্মিত হয়েছে।