দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার ছুঁইছুঁই
jugantor
দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার ছুঁইছুঁই

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৪ এপ্রিল ২০২১, ১৬:৫১:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত বছরের চেয়ে এ বছর সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেশি। ইতোমধ্যে করোনার সংক্রমণ রোধে সরকার কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে। আজ (বুধবার) থেকে আট দিনের জন্য জারি করা হয়েছে সর্বাত্মক লকডাউন।

এর আগে ৫ এপ্রিল থেকে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। তাতে খুব একটা কার্যকর ফলাফল দেখা য়ায়নি। ফলে সর্বাত্মক লকডাউন জারি করে সরকার। তবে তাতেও মৃত্যু ও আক্রান্তের ঊর্ধ্বগতি ঠেকানো যায়নি। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড ৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৯৮৭ জনে। এর আগে ১৩ এপ্রিল দেশে সর্বোচ্চ ৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল।একই সময়ে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও ৫ হাজার ১৮৫ জন। এতে মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৩ হাজার ১৭০ জন।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। আর প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। গত বছরে এত মৃত্যুর সংখ্যা দেখেনি দেশ। তবে এ বছরই আক্রান্ত ও মৃত্যু রেকর্ড হারে বাড়তে থাকে।

এদিকে সংক্রমণ প্রতিরোধে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। চলাচলে আরোপ করেছে বিধিনিষেধ। আজ থেকে এ কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে কাজ করছে প্রশাসন। ইতোমধ্যে সকাল থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর অবস্থানে দেখা গেছে।

দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার ছুঁইছুঁই

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত বছরের চেয়ে এ বছর সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেশি। ইতোমধ্যে করোনার সংক্রমণ রোধে সরকার কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে। আজ (বুধবার) থেকে আট দিনের জন্য জারি করা হয়েছে সর্বাত্মক লকডাউন। 

এর আগে ৫ এপ্রিল থেকে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। তাতে খুব একটা কার্যকর ফলাফল দেখা য়ায়নি। ফলে সর্বাত্মক লকডাউন জারি করে সরকার। তবে তাতেও মৃত্যু ও আক্রান্তের ঊর্ধ্বগতি ঠেকানো যায়নি। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড ৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৯৮৭ জনে। এর আগে ১৩ এপ্রিল দেশে সর্বোচ্চ ৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল।একই সময়ে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও ৫ হাজার ১৮৫ জন। এতে মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৩ হাজার ১৭০ জন।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। আর প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। গত বছরে এত মৃত্যুর সংখ্যা দেখেনি দেশ। তবে এ বছরই আক্রান্ত ও মৃত্যু রেকর্ড হারে বাড়তে থাকে। 

এদিকে সংক্রমণ প্রতিরোধে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। চলাচলে আরোপ করেছে বিধিনিষেধ। আজ থেকে এ কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে কাজ করছে প্রশাসন। ইতোমধ্যে সকাল থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর অবস্থানে দেখা গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস