ব্যস্ততার পর 'ক্লান্ত' সড়ক এখন ফাঁকা!
jugantor
ব্যস্ততার পর 'ক্লান্ত' সড়ক এখন ফাঁকা!

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৩ মে ২০২১, ১৪:০৯:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকার ঘোষিত লকডাউনে গণপরিবহণ বন্ধ থাকলেও বিগত কয়েকদিনে উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যান চলাচল ছিল রেকর্ড সংখ্যক। বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে বুধবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ৫২ হাজার ৭৫৩টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতু চালু হওয়ার পর এটিই সর্বোচ্চ। তবে ব্যস্ততার পর ক্লান্ত মহাসড়ক এখন অনেকটাই ফাঁকা।

বৃহস্পতিবার মহাসড়কের মির্জাপুর, গোড়াই, টাঙ্গাইল বাইপাস, এলেঙ্গা ও বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব পাড়সহ বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে দেখা গেছে, ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে গাড়ি চলাচল নেই বললেই চলে। কোথাও কোনো ধরনের যানজট দেখা যায়নি। ফাঁকা রাস্তায় যান চলাচলও স্বাভাবিক। গাড়িগুলোতেও যাত্রী তেমনটা নেই।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাস্তায় পণ্যবাহী ট্রাক, মাইক্রোবাস, পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান ও মোটরসাইলসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগত গাড়ি চলতে দেখা গেছে। গণপরিবহন ছিল তবে যাত্রী সংখ্যা কম।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। কোথাও যানজট নেই। মানুষ নির্বিঘ্নে বাড়ি ফিরছে। তবে গত দুইদিনে উল্লেখযোগ্য জট ছিল।

ব্যস্ততার পর 'ক্লান্ত' সড়ক এখন ফাঁকা!

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৩ মে ২০২১, ০২:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকার ঘোষিত লকডাউনে গণপরিবহণ বন্ধ থাকলেও বিগত কয়েকদিনে উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যান চলাচল ছিল রেকর্ড সংখ্যক। বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে বুধবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ৫২ হাজার ৭৫৩টি যানবাহন পারাপার হয়েছে।  বঙ্গবন্ধু সেতু চালু হওয়ার পর এটিই সর্বোচ্চ। তবে ব্যস্ততার পর ক্লান্ত মহাসড়ক এখন অনেকটাই ফাঁকা।

বৃহস্পতিবার মহাসড়কের মির্জাপুর, গোড়াই, টাঙ্গাইল বাইপাস, এলেঙ্গা ও বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব পাড়সহ বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে দেখা গেছে, ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে গাড়ি চলাচল নেই বললেই চলে। কোথাও কোনো ধরনের যানজট দেখা যায়নি। ফাঁকা রাস্তায় যান চলাচলও স্বাভাবিক। গাড়িগুলোতেও যাত্রী তেমনটা নেই।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাস্তায় পণ্যবাহী ট্রাক, মাইক্রোবাস, পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান ও মোটরসাইলসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগত গাড়ি চলতে দেখা গেছে। গণপরিবহন ছিল তবে যাত্রী সংখ্যা কম।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। কোথাও যানজট নেই। মানুষ নির্বিঘ্নে বাড়ি ফিরছে। তবে গত দুইদিনে উল্লেখযোগ্য জট ছিল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন