পরীমনির সেই রাতের ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেবেন না ক্লাব প্রেসিডেন্ট
jugantor
পরীমনির সেই রাতের ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেবেন না ক্লাব প্রেসিডেন্ট

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ জুন ২০২১, ১৪:২৭:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

বোট ক্লাবে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ তোলার পর পরীমনির বিরুদ্ধে ভাঙচুরের অভিযোগ তুলেছে গুলশানের একটি ক্লাব। ধর্ষণচেষ্টার দুদিন আগে মধ্যরাতে পরীমনি অল কমিউনিটি ক্লাবে গিয়ে ভাঙচুর করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ক্লাবের প্রেসিডেন্ট কেএম আলমগীর ইকবাল এই অভিযোগ করেছেন। তবে অভিযোগ করলেও এ ঘটনায় তিনি নায়িকার বিরুদ্ধে মামলা করবেন না বলে জানিয়েছেন।

ক্লাবের প্রেসিডেন্ট বুধবার বলেন, পরীমনি সেই রাতে ১৫টি গ্লাস ভেঙেছেন, নয়টি স্ট্রে ছুড়ে মেরেছেন ও অনেক হাফপ্লেট ছুড়ে মেরে ভেঙেছেন। ঘটনার দিন পরীমনির সঙ্গে এক ভদ্রলোক ছিলেন, হাফপ্যান্ট পরা আরেক নারীও ছিলেন। এটা রাত প্রায় সোয়া ১টা বা দেড়টার ঘটনা।

বিষয়টি থানায় জানালে জিডি হিসেবে রেকর্ড করে পুলিশ। তবে ক্লাব প্রেসিডেন্ট আলমগীর বৃহস্পতিবার জানান, পরীমনির বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেওয়ার কোনো ইচ্ছা তাদের নেই। ‘এমন কিছু তো করেননি উনি। কয়েকটা প্লেট ভেঙেছেন, সেটি যেই মেম্বারের অতিথি হয়ে গিয়েছিলেন, সেই মেম্বারই দিতে পারতেন। ক্লাবের মেম্বারের সঙ্গে যারা ক্লাবে আসেন, তারা শুধু মেম্বারেরই নন, ক্লাবেরও অতিথি। ’

তবে ভাঙচুরের অভিযোগ অস্বীকার করে পরীমনি সাংবাদিকদের সামনে প্রশ্ন রেখেছেন— সেদিন ক্লাবে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে থাকলে তা আট দিন পর কেন প্রকাশ করা হলো?

এ বিষয়ে আলমগীরের ভাষ্য— আমরা তো কোনো ভিডিও করিনি। কিছুই করিনি। উনি ট্রিপল নাইনে কল করে পুলিশ এনেছিলেন, পুলিশ সম্ভবত অনর্থক আনার জন্য নিজেরাই জিডি করেছে। বিষয়টি আমরা জানিই না। কালকেও সাংবাদিকরা এসেছিলেন, আমরা তো এটাও করিনি। সাংবাদিকরা জানতে চাইছে বলে জানিয়ে দিলাম।

ক্লাব কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে পরীমনির বিরুদ্ধে কোনো আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে আলমগীর বলেন, সে রকম কোনো ইচ্ছা কিংবা পরিকল্পনা তাদের নেই।

‘ছোট একটা বিষয়, যা হওয়ার তা হয়ে গেছে ওই দিন। আমরা কার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেব? কেন নেব? আল্লাহ মানুষের ইজ্জত দিয়েছেন, আল্লাহই সেটি রক্ষা করবেন। উনি টুকটাক ভুল করেছিলেন। সেটি নিয়ে আমাদের কোনো দাবিও নেই, কথাও নেই।’

অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমনি যাওয়ার পরের রাতেই উত্তরার পাশে বিরুলিয়ায় ঢাকা বোট ক্লাবে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটে। তার চার দিন পর তিনি প্রথমে ফেসবুকে অভিযোগ করেন, ওই ক্লাবে তিনি ‘ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার’ শিকার হয়েছিলেন।

পরীমনির সেই রাতের ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেবেন না ক্লাব প্রেসিডেন্ট

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ জুন ২০২১, ০২:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বোট ক্লাবে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ তোলার পর পরীমনির বিরুদ্ধে ভাঙচুরের অভিযোগ তুলেছে গুলশানের একটি ক্লাব।  ধর্ষণচেষ্টার দুদিন আগে মধ্যরাতে পরীমনি অল কমিউনিটি ক্লাবে গিয়ে ভাঙচুর করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।  ক্লাবের প্রেসিডেন্ট কেএম আলমগীর ইকবাল এই অভিযোগ করেছেন।  তবে অভিযোগ করলেও এ ঘটনায় তিনি নায়িকার বিরুদ্ধে মামলা করবেন না বলে জানিয়েছেন। 

ক্লাবের প্রেসিডেন্ট বুধবার বলেন, পরীমনি সেই রাতে ১৫টি গ্লাস ভেঙেছেন, নয়টি স্ট্রে ছুড়ে মেরেছেন ও অনেক হাফপ্লেট ছুড়ে মেরে ভেঙেছেন। ঘটনার দিন পরীমনির সঙ্গে এক ভদ্রলোক ছিলেন, হাফপ্যান্ট পরা আরেক নারীও ছিলেন। এটা রাত প্রায় সোয়া ১টা বা দেড়টার ঘটনা। 

বিষয়টি থানায় জানালে জিডি হিসেবে রেকর্ড করে পুলিশ।  তবে ক্লাব প্রেসিডেন্ট আলমগীর বৃহস্পতিবার জানান, পরীমনির বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেওয়ার কোনো ইচ্ছা তাদের নেই।  ‘এমন কিছু তো করেননি উনি।  কয়েকটা প্লেট ভেঙেছেন, সেটি যেই মেম্বারের অতিথি হয়ে গিয়েছিলেন, সেই মেম্বারই দিতে পারতেন। ক্লাবের মেম্বারের সঙ্গে যারা ক্লাবে আসেন, তারা শুধু মেম্বারেরই নন, ক্লাবেরও অতিথি। ’

তবে ভাঙচুরের অভিযোগ অস্বীকার করে পরীমনি সাংবাদিকদের সামনে প্রশ্ন রেখেছেন— সেদিন ক্লাবে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে থাকলে তা আট দিন পর কেন প্রকাশ করা হলো?

এ বিষয়ে আলমগীরের ভাষ্য— আমরা তো কোনো ভিডিও করিনি।  কিছুই করিনি।  উনি ট্রিপল নাইনে কল করে পুলিশ এনেছিলেন, পুলিশ সম্ভবত অনর্থক আনার জন্য নিজেরাই জিডি করেছে। বিষয়টি আমরা জানিই না। কালকেও সাংবাদিকরা এসেছিলেন, আমরা তো এটাও করিনি। সাংবাদিকরা জানতে চাইছে বলে জানিয়ে দিলাম।

ক্লাব কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে পরীমনির বিরুদ্ধে কোনো আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে আলমগীর বলেন, সে রকম কোনো ইচ্ছা কিংবা পরিকল্পনা তাদের নেই।

‘ছোট একটা বিষয়, যা হওয়ার তা হয়ে গেছে ওই দিন। আমরা কার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেব? কেন নেব? আল্লাহ মানুষের ইজ্জত দিয়েছেন, আল্লাহই সেটি রক্ষা করবেন।  উনি টুকটাক ভুল করেছিলেন।  সেটি নিয়ে আমাদের কোনো দাবিও নেই, কথাও নেই।’

অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমনি যাওয়ার পরের রাতেই উত্তরার পাশে বিরুলিয়ায় ঢাকা বোট ক্লাবে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটে। তার চার দিন পর তিনি প্রথমে ফেসবুকে অভিযোগ করেন, ওই ক্লাবে তিনি ‘ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার’ শিকার হয়েছিলেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা