একসঙ্গে তিন ডোজ টিকা নিয়ে পর্যবেক্ষণে সৌদি প্রবাসী 
jugantor
একসঙ্গে তিন ডোজ টিকা নিয়ে পর্যবেক্ষণে সৌদি প্রবাসী 

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৭ জুলাই ২০২১, ২০:০১:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনার টিকা

একসঙ্গে করোনার তিন ডোজ টিকা নিয়ে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন সৌদি প্রবাসী নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা ওমর ফারুক।

সৌদি আরবে যাওয়ার আগে করোনার টিকা নিতে সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন তিনি। না বুঝেই তিনটি বুথ থেকে তিন ডোজ টিকা নেন এ প্রবাসী।

একজন ব্যক্তি তিন ডোজ টিকা কীভাবে নিলেন, সেই ব্যাখ্যা নেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে। তবে তারা বলছেন, তিন ডোজ টিকা নেয়া ওমর ফারুক বর্তমানে পর্যবেক্ষণে আছেন। বাড়তি টিকা নেওয়ার কারণে কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখনো দেখা দেয়নি।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে ওমর ফারুক বলেন, আমি যখন টিকা কেন্দ্রে ঢুকলাম তখন আমাকে একজন বলল ডান সাইডের কর্নারে যেতে। ওইখানে যখন টিকা দেওয়া শেষ হলো জিজ্ঞেস করলাম, কোথায় যাব? উনি বলল, সামনের দিকে। সামনে আসলাম, ওইখানেও একটা টিকা দিল। ওনাকে জিজ্ঞাস করলাম কোথায় যাব উনিও বলল সামনের দিকে যেতে। সামনে আসলাম আর কিছু জিজ্ঞেস করে নাই। আরেকটা টিকা দিয়ে দিছে। মোট তিনবার টিকা দিয়েছে। বাইরে এসে যখন বাকিদের জিজ্ঞেস করলাম আপনার কয়বার টিকা দিয়েছে, ওনারা বলল একবার টিকা দিয়েছে।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এটি বড় ধরনের ভুল হয়েছে। তিন ডোজ টিকা দেওয়া ব্যক্তিকে পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। তিন ডোজ টিকা নেওয়ার কিন্তু কোনো নিয়ম নাই। এবং একটা ডোজ নিয়ে ২১ দিনের মধ্যে নেওয়ার নিয়ম নাই।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী, করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষার জন্য একজন ব্যক্তিকে দুই ডোজ টিকা দিতে হবে। প্রথম ডোজ নেয়ার পর চার সপ্তাহ বা আট সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ নিতে হয়। সাধারণত টিকা দেওয়ার পর টিকা কার্ডে সেটি উল্লেখ করতে হয়।

নিয়ম অনুযায়ী টিকা নেওয়ার পর প্রত্যেক ব্যক্তিকে ৩০ মিনিট পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এমনকি টিকা নেয়া ব্যক্তির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখার জন্য একজন চিকিৎসকের নম্বর দেয়া হয় টিকা কার্ডে। কোনো ধরনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে মোবাইল ফোনে জানানোর পরামর্শ রয়েছে কর্তৃপক্ষের।

একসঙ্গে তিন ডোজ টিকা নিয়ে পর্যবেক্ষণে সৌদি প্রবাসী 

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৭ জুলাই ২০২১, ০৮:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনার টিকা
ছবি: সংগৃহীত

একসঙ্গে করোনার তিন ডোজ টিকা নিয়ে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন সৌদি প্রবাসী নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা ওমর ফারুক।

সৌদি আরবে যাওয়ার আগে করোনার টিকা নিতে সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন তিনি। না বুঝেই তিনটি বুথ থেকে তিন ডোজ টিকা নেন এ প্রবাসী। 

একজন ব্যক্তি তিন ডোজ টিকা কীভাবে নিলেন, সেই ব্যাখ্যা নেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে। তবে তারা বলছেন, তিন ডোজ টিকা নেয়া ওমর ফারুক বর্তমানে পর্যবেক্ষণে আছেন। বাড়তি টিকা নেওয়ার কারণে কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখনো দেখা দেয়নি।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে ওমর ফারুক বলেন, আমি যখন টিকা কেন্দ্রে ঢুকলাম তখন আমাকে একজন বলল ডান সাইডের কর্নারে যেতে। ওইখানে যখন টিকা দেওয়া শেষ হলো জিজ্ঞেস করলাম, কোথায় যাব? উনি বলল, সামনের দিকে। সামনে আসলাম, ওইখানেও একটা টিকা দিল। ওনাকে জিজ্ঞাস করলাম কোথায় যাব উনিও বলল সামনের দিকে যেতে। সামনে আসলাম আর কিছু জিজ্ঞেস করে নাই। আরেকটা টিকা দিয়ে দিছে। মোট তিনবার টিকা দিয়েছে। বাইরে এসে যখন বাকিদের জিজ্ঞেস করলাম আপনার কয়বার টিকা দিয়েছে, ওনারা বলল একবার টিকা দিয়েছে।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এটি বড় ধরনের ভুল হয়েছে। তিন ডোজ টিকা দেওয়া ব্যক্তিকে পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। তিন ডোজ টিকা নেওয়ার কিন্তু কোনো নিয়ম নাই। এবং একটা ডোজ নিয়ে ২১ দিনের মধ্যে নেওয়ার নিয়ম নাই।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী, করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষার জন্য একজন ব্যক্তিকে দুই ডোজ টিকা দিতে হবে। প্রথম ডোজ নেয়ার পর চার সপ্তাহ বা আট সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ নিতে হয়। সাধারণত টিকা দেওয়ার পর টিকা কার্ডে সেটি উল্লেখ করতে হয়।

নিয়ম অনুযায়ী টিকা নেওয়ার পর প্রত্যেক ব্যক্তিকে ৩০ মিনিট পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এমনকি টিকা নেয়া ব্যক্তির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখার জন্য একজন চিকিৎসকের নম্বর দেয়া হয় টিকা কার্ডে। কোনো ধরনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে মোবাইল ফোনে জানানোর পরামর্শ রয়েছে কর্তৃপক্ষের।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস