আবরার হত্যা: যুক্তিতর্ক শুনানি ৭ সেপ্টেম্বর
jugantor
আবরার হত্যা: যুক্তিতর্ক শুনানি ৭ সেপ্টেম্বর

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৩ আগস্ট ২০২১, ১৮:৩৪:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আবরার হত্যা

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। এর মধ্যে দিয়ে মামলাটি বিচারের শেষ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। আগামী ৭ সেপ্টম্বর যুক্তিতর্ক শুনানির জন্য রাখা হয়েছে।

সোমবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক আবু জাফর মোহাম্মদ কামরুজ্জামান যুক্তিতর্কের এই দিন ধার্য করেন।

এর আগে গত রোববার আসামি মিফতাউল ইসলাম জিয়ন এবং মেহেদী হাসান রাসেল নিজেদের পক্ষে সাফাই সাক্ষ্য দেন।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আবু আব্দুল্লাহ মিঞা বলেন, আজ এ মামলায় আসামি ইশতিয়াক আহম্মেদের পক্ষে রাসেল মিয়া নামের এক ব্যক্তি সাফাই সাক্ষী দেন। এ ছাড়াও আসামি মেহেদী হাসান রাসেলের পক্ষে সাফাই সাক্ষী দেন তার বাবা রুহুল আমিন, তার আত্মীয় সিদ্দিক মিয়া ও রাজিব মোল্লা। এরপরে বিচারক সাফাই সাক্ষী সমাপ্ত করে যুক্তিতর্ক শুনানির দিন ধার্য করেছেন। যুক্তিতর্ক শুনানি হলেই মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে ছাত্রলীগের কিছু উশৃঙ্খল নেতাকর্মীর হাতে নির্দয় পিটুনির শিকার হয়ে মারা যান বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ। ঘটনার পরদিন নিহতের বাবা বরকতউল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় একটি মামলা করেন।

গত বছর ১৩ নভেম্বর মামলায় ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) লালবাগ জোনাল টিমের পরিদর্শক মো. ওয়াহিদুজ্জামান।

আবরার হত্যা: যুক্তিতর্ক শুনানি ৭ সেপ্টেম্বর

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৩ আগস্ট ২০২১, ০৬:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আবরার হত্যা
ফাইল ছবি

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। এর মধ্যে দিয়ে মামলাটি বিচারের শেষ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে।  আগামী ৭ সেপ্টম্বর যুক্তিতর্ক শুনানির জন্য রাখা হয়েছে। 

সোমবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক আবু জাফর মোহাম্মদ কামরুজ্জামান যুক্তিতর্কের এই দিন ধার্য করেন।

এর আগে গত রোববার আসামি মিফতাউল ইসলাম জিয়ন এবং মেহেদী হাসান রাসেল নিজেদের পক্ষে সাফাই সাক্ষ্য দেন।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আবু আব্দুল্লাহ মিঞা বলেন,  আজ এ মামলায় আসামি ইশতিয়াক আহম্মেদের পক্ষে রাসেল মিয়া নামের এক ব্যক্তি সাফাই সাক্ষী দেন। এ ছাড়াও আসামি মেহেদী হাসান রাসেলের পক্ষে সাফাই সাক্ষী দেন তার বাবা রুহুল আমিন, তার আত্মীয় সিদ্দিক মিয়া ও রাজিব মোল্লা। এরপরে বিচারক সাফাই সাক্ষী সমাপ্ত করে যুক্তিতর্ক শুনানির দিন ধার্য করেছেন। যুক্তিতর্ক শুনানি হলেই মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে ছাত্রলীগের কিছু উশৃঙ্খল নেতাকর্মীর হাতে নির্দয় পিটুনির শিকার হয়ে মারা যান বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ। ঘটনার পরদিন নিহতের বাবা বরকতউল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় একটি মামলা করেন।

গত বছর ১৩ নভেম্বর মামলায় ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) লালবাগ জোনাল টিমের পরিদর্শক মো. ওয়াহিদুজ্জামান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বুয়েট ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু