গাজীপুর সিটি নির্বাচন স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৭ মে ২০১৮, ২০:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন। ফাইল ছবি

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ওপর হাইকোর্টের দেয়া তিন মাসের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের আপিল আবেদনের নথি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে চেম্বার আদালতে না পৌঁছায় শুনানি হয়নি।

সোমবার দুপুরে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালত থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য দেন অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

এদিকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমও সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি হিসেবে একই আবেদন করবেন বলে জানিয়েছেন।

এদিকে গাজীপুর সিটি নির্বাচনে গণজোয়ার দেখে সরকার পিছুটান দিয়েছে। তাই নির্বাচনের ৬-৭ দিন বাকি থাকতে ঢাকা উত্তর সিটির মতো গাজীপুর সিটি নির্বাচন বন্ধ করেছে বলে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা অভিযোগ করেছন।

অন্যদিকে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে স্থগিতাদেশের পর এখন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আইন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলেছেন, সীমানা নির্ধারনে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব রয়েছে। গাজীপুর সিটি নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের ঘাটতি ছিল। তাদের বিষয়টি আগেই নিষ্পত্তি করা উচিত ছিল। এ জন্য দ্রুত সীমানা-সংক্রান্ত জটিলতা নিষ্পত্তি করে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা এখন তাদের দায়িত্ব। স্থানীয় সরকার ও নির্বাচন কমিশনের আইনি যোগ্যতা ও লোকবলের অভাবে তারা বারবার বিপাকে পড়ছে। এ জন্য আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন। কারণ আইনি কারণে অনেক আসনে এ ধরনের জটিলতা হতে পারে।

কেউ কেউ বলছেন, এ ধরনের নির্বাচনে সীমানা-সংক্রান্ত বিরোধ থাকে। তারপর আদালতে গড়ায়। আদালত অনেক সময় স্থগিতাদেশ দেন। এখানে আইনের কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি।

রোববার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেছিলেন, আদেশের কপি দেখে তারা আপিলের সিদ্ধান্ত নেবেন। আর নির্বাচন কমিশনের আইনজীবী বলেছিলেন আপিলের বিষয়টি সম্পূর্ণ কমিশনের সিদ্ধান্ত। কিন্ত সোমবার বিকাল পর্যন্ত তাদের দুপক্ষই আপিল করেননি।

এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি যুগান্তরকে বলেন, আমরা এখনো আদেশের কপি পাইনি। পেলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।

এর আগে সোমবার সকালে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আপিলের সিদ্ধান্ত নেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের বিএনপির প্রার্থী।

পরে এ বিষয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর খাস কামরায় দেখা করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থীর আইনজীবী জয়নুল আবেদীন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান ও অ্যাডভোকেট সগীর হোসেন লিয়ন। এরপর তাকে আপিলের অনুমতি দেয়া হয়।

এদিকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রাথী জাহাঙ্গীর আলমও সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি হিসেবে একই আবেদন করবেন বলে জানিয়েছেন।

রোববার সকালে সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের নেতা এ বি এম আজহারুল ইসলাম সুরুজ একটি রিট আবেদন করেন। ওইদিনই প্রথমিক শুনানি শেষে নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করে রুল জারি করেন আদালত। ওই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করার জন্য বিএনপির মেয়র প্রার্থী দিলটির নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান উদ্দিন সরকার সোমবার আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর অনুমতি নেন। পরে তিনি সুপ্রিমকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ওই আবেদন জমা দিলেও কপি আদালতে না আসায় চেম্বার আদালতে শুনানি হয়নি।

হাই কোর্টর স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আবেদন করতে সোমবার দুপুরে সুপ্রিমকোর্টে আসেন নৌকার প্রার্থী গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, যে কোনো প্রক্রিয়ায় নির্বাচনটা যেন হয়। গাজীপুর সিটি উন্নয়নের স্বার্থে আমরা নির্বাচন চাই। আমরা গণতন্ত্র চর্চা করতে চাই। গাজীপুর সিটির নির্বাচনের স্বার্থে আমি সবার কাছে সহযোগিতা চাই। এজন্য আমি এসেছি, হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আবেদন করব।

পরে জাহাঙ্গীর আলমের আইনজীবী এস এম শফিকুল ইসলাম বাবু সাংবাদিকদের বলেন, আমরা হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল আবেদনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আবেদনের প্রক্রিয়া চলছে। বিএনপি অভিযোগ করছে, পরাজয় আঁচ করে সরকারই ‘ষড়যন্ত্র করে’ এ নির্বাচন আটকে দিয়েছে। ওই অভিযোগ অস্বীকার করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বলেছে, আদালতের এই সিদ্ধান্তে সরকারের কোনো হাত নেই।

এদিকে পরাজয় নিশ্চিত জেনে সরকারের হস্তক্ষেপে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা অভিযোগ করেছন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনে আগামী ১৫ মে নির্বাচন হওয়ার কথা। ইতিমধ্যে এ নির্বাচনের প্রচার জমেও উঠেছিল। এর মধ্যে এ নির্বাচনে স্থগিতাদেশ দিলেন হাইকোর্ট।

ঘটনাপ্রবাহ : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×