স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে তালিকার অপেক্ষায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী
jugantor
স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে তালিকার অপেক্ষায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৯ অক্টোবর ২০২১, ২০:৫০:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে।

স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে তালিকার অপেক্ষায় রয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, আমরা অপেক্ষায় আছি তালিকাটা পাওয়ার। সেই তালিকা হাতে পেলেই কাজ শুরু হয়ে যাবে। আমাদের টিকা আছে, লোকও আছে, ব্যবস্থাও আছে। খুব তাড়াতাড়ি আমরা সেই কাজটি শুরু করতে পারব বলে আশা করি।

মঙ্গলবার রাজধানীর মহাখালীতে শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরির কাজ করছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও টিকা দিতে প্রস্তুত।

গত ১৪ অক্টোবর মানিকগঞ্জের কয়েকটি স্কুলের ১২০ জন শিক্ষার্থীকে ফাইজারের টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে। তাদের ১০ থেকে ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। সেদিন জাহিদ মালেক জানিয়েছিলেন, পর্যবেক্ষণ শেষে সারাদেশে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে।

স্বাস্থমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে দারিদ্র্য বিমোচন এবং ক্ষুধা-অসুখের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে। পাশাপাশি যারা অশান্তি তৈরি করছে তাদের বিরুদ্ধেও। যেমন যুদ্ধ আমরা করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে করে যাচ্ছি, সন্ত্রাসী, যারা দেশের শান্তি চায় না, তাদের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ চলবে।

স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে তালিকার অপেক্ষায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে।
ফাইল ছবি

স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে তালিকার অপেক্ষায় রয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, আমরা অপেক্ষায় আছি তালিকাটা পাওয়ার। সেই তালিকা হাতে পেলেই কাজ শুরু হয়ে যাবে। আমাদের টিকা আছে, লোকও আছে, ব্যবস্থাও আছে। খুব তাড়াতাড়ি আমরা সেই কাজটি শুরু করতে পারব বলে আশা করি।

মঙ্গলবার রাজধানীর মহাখালীতে শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরির কাজ করছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও টিকা দিতে প্রস্তুত।

গত ১৪ অক্টোবর মানিকগঞ্জের কয়েকটি স্কুলের ১২০ জন শিক্ষার্থীকে ফাইজারের টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে। তাদের ১০ থেকে ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। সেদিন জাহিদ মালেক জানিয়েছিলেন, পর্যবেক্ষণ শেষে সারাদেশে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে।

স্বাস্থমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে দারিদ্র্য বিমোচন এবং ক্ষুধা-অসুখের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে। পাশাপাশি যারা অশান্তি তৈরি করছে তাদের বিরুদ্ধেও। যেমন যুদ্ধ আমরা করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে করে যাচ্ছি, সন্ত্রাসী, যারা দেশের শান্তি চায় না, তাদের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ চলবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন