বিশেষ ট্রাইব্যুনাল করে হামলাকারীদের বিচারের দাবি 
jugantor
বিশেষ ট্রাইব্যুনাল করে হামলাকারীদের বিচারের দাবি 

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১১:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের বিভিন্ন স্থানে পূজামণ্ডপে হামলা ও বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জড়িতদের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও সন্ত্রাস দমনের আওতায় এনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বিচারের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত।

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লা চত্বরে আয়োজিত গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিলে তিনি এ দাবি জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্য রানা দাশগুপ্ত বলেন, সাম্প্রদায়িক সহিংসতা তদন্তে সুপ্রিমকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত একজন বিচারপতির নেতৃত্বে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে।

‘সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত সব মন্দির, বাড়িঘর পুনর্নির্মাণের পাশাপাশি আহতদের চিকিৎসা ও নিহতদের পরিবারকে ২০ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।’
হামলার ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের যদি গাফিলতি থাকে, তা তদন্ত করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তিনি।

রানা দাশগুপ্ত আরও বলেন, যারা উসকানি দিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি সাম্প্রদায়িক হামলা ও সহিংসতার সময় যেসব জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসেননি, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

এ ছাড়া বাহাত্তরের সংবিধান পুনঃপ্রতিষ্ঠা এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুত সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দ্রুত বাস্তবায়ন দাবি করেন এই নেতা।

সমাবেশ থেকে ফেব্রুয়ারিতে এসব দাবির সমর্থনে চলো চলো ঢাকা চলো শীর্ষক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রার কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

বিশেষ ট্রাইব্যুনাল করে হামলাকারীদের বিচারের দাবি 

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের বিভিন্ন স্থানে পূজামণ্ডপে হামলা ও বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জড়িতদের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও সন্ত্রাস দমনের আওতায় এনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বিচারের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত।

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লা চত্বরে আয়োজিত গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিলে তিনি এ দাবি জানান। 

প্রধান অতিথির বক্তব্য রানা দাশগুপ্ত বলেন, সাম্প্রদায়িক সহিংসতা তদন্তে সুপ্রিমকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত একজন বিচারপতির নেতৃত্বে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। 

‘সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত সব মন্দির, বাড়িঘর পুনর্নির্মাণের পাশাপাশি আহতদের চিকিৎসা ও নিহতদের পরিবারকে ২০ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।’ 
হামলার ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের যদি গাফিলতি থাকে, তা তদন্ত করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তিনি। 

রানা দাশগুপ্ত আরও বলেন, যারা উসকানি দিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি সাম্প্রদায়িক হামলা ও সহিংসতার সময় যেসব জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসেননি, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তিনি আহ্বান জানান। 

এ ছাড়া বাহাত্তরের সংবিধান পুনঃপ্রতিষ্ঠা এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুত সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দ্রুত বাস্তবায়ন দাবি করেন এই নেতা।

সমাবেশ থেকে ফেব্রুয়ারিতে এসব দাবির সমর্থনে চলো চলো ঢাকা চলো শীর্ষক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রার কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন