‘বক্তা’ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ
jugantor
‘বক্তা’ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:০৩:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের গাছা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কথিত ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত এ অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন।

এদিন আসামি রফিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে অভিযোগপত্র আমলে নেন আদালত। একই সঙ্গে অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য আগামী ৯ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন।

এর আগে নভেম্বরের শুরুতে বিস্ফোরক আইনে করা মামলায় রফিকুল ইসলাম হাইকোর্ট থেকে জামিন পান। তবে তার বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি মামলা থাকায় এখনই কারাগার থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না তিনি।

২৮ মার্চ হেফাজতের হরতালের নামে নাশকতা, ময়মনসিংহ নগরীর চড়পাড়া মোড়ে পুলিশ বক্স ভাঙচুর, বাসে আগুন এবং পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় বিস্ফোরক আইনে এ মামলা হয়।

গত ৭ এপ্রিল রফিকুল ইসলামকে তার গ্রামের বাড়ি থেকে আটক করে র‍্যাব। পরের দিন র‍্যাব বাদী হয়ে গাজীপুরের গাছা থানায় মামলা করে।

রাষ্ট্রবিরোধী ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে র‍্যাবের করা ওই মামলায় ৮ এপ্রিল তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

‘বক্তা’ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:০৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের গাছা থানায়  ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কথিত ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছেন ট্রাইব্যুনাল। 

মঙ্গলবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত এ অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। 

এদিন আসামি রফিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে অভিযোগপত্র আমলে নেন আদালত। একই সঙ্গে অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য আগামী ৯ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন।

এর আগে নভেম্বরের শুরুতে বিস্ফোরক আইনে করা মামলায় রফিকুল ইসলাম হাইকোর্ট থেকে জামিন পান।  তবে তার বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি মামলা থাকায় এখনই কারাগার থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না তিনি।

২৮ মার্চ হেফাজতের হরতালের নামে নাশকতা, ময়মনসিংহ নগরীর চড়পাড়া মোড়ে পুলিশ বক্স ভাঙচুর, বাসে আগুন এবং পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় বিস্ফোরক আইনে এ মামলা হয়।

গত ৭ এপ্রিল রফিকুল ইসলামকে তার গ্রামের বাড়ি থেকে আটক করে র‍্যাব। পরের দিন র‍্যাব বাদী হয়ে গাজীপুরের গাছা থানায় মামলা করে। 

রাষ্ট্রবিরোধী ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে র‍্যাবের করা ওই মামলায় ৮ এপ্রিল তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন