আইন করলে হবে না, মানসিকতাও বদলাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
jugantor
আইন করলে হবে না, মানসিকতাও বদলাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৫৯:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আইন করলে হবে না, মানসিকতাও বদলাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

এত আইন করার পরও নারীদের ওপর সহিংসতা বন্ধ না হওয়ায় নিজের উদ্বেগের কথা তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, শুধু আইন করলে হবে না, এখানে মানসিকতাটাও বদলাতে হবে। চিন্তা-চেতনায় পরিবর্তন আনতে হবে এবং বিশ্বাসটা হচ্ছে সবচেয়ে বড় জিনিস।

বৃহস্পতিবার বেগম রোকেয়া দিবসের অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী যুক্ত হন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। তার পক্ষে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা পাঁচ নারীর হাতে রোকেয়া পদক তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নারীদের ওপর সহিংসতা বন্ধ হয়নি, এটি আমাদের জন্য পীড়াদায়ক। যদিও আমরা আইন করে দিয়েছি। যেমন— আমরা ধর্ষণের বিরুদ্ধে আইন করেছি, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আইন করেছি এবং আমরা পারিবারিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আইন করে দিয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই বিশ্বাসটা রাখতে হবে যে, নারীরা শুধু ভোগের বস্তু না, নারীরা সহযোদ্ধা। নারীরা সহযোগী। তাদের সমান অধিকার দিতে হবে।

বেগম রোকেয়ার অবদানের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বেগম রোকেয়া যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, আমি মনে করি, অনেকটাই আমরা সে স্বপ্নপূরণ করতে সক্ষম হয়েছি।

এবার নারী শিক্ষায় অবদান রাখায় অধ্যাপক হাসিনা জাকারিয়া বেলা এবং নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখায় যশোর জেলার অর্চনা বিশ্বাস রোকেয়া পদক পেয়েছেন।

নারীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখায় কুমিল্লার শামসুন্নাহার রহমান পরাণ এবার মরণোত্তর পদক পেয়েছেন।

আর সাহিত্য ও সংস্কৃতির মাধ্যমে নারী জাগরণে ভূমিকা রাখায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও রোকেয়া হলের প্রভোস্ট জিনাত হুদা এবং পল্লী উন্নয়নে ভূমিকার জন্য কুষ্টিয়ার গবেষক সারিয়া সুলতানাকে রোকেয়া পদক দেওয়া হয়।

রোকেয়া দিবস ও পদক বিতরণ অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

আইন করলে হবে না, মানসিকতাও বদলাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আইন করলে হবে না, মানসিকতাও বদলাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
ছবি: সংগৃহীত

এত আইন করার পরও নারীদের ওপর সহিংসতা বন্ধ না হওয়ায় নিজের উদ্বেগের কথা তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  তিনি বলেছেন, শুধু আইন করলে হবে না, এখানে মানসিকতাটাও বদলাতে হবে। চিন্তা-চেতনায় পরিবর্তন আনতে হবে এবং বিশ্বাসটা হচ্ছে সবচেয়ে বড় জিনিস।

বৃহস্পতিবার বেগম রোকেয়া দিবসের অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী যুক্ত হন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে।  তার পক্ষে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা পাঁচ নারীর হাতে রোকেয়া পদক তুলে দেন।  

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নারীদের ওপর সহিংসতা বন্ধ হয়নি, এটি আমাদের জন্য পীড়াদায়ক।  যদিও আমরা আইন করে দিয়েছি।  যেমন— আমরা ধর্ষণের বিরুদ্ধে আইন করেছি, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আইন করেছি এবং আমরা পারিবারিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আইন করে দিয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই বিশ্বাসটা রাখতে হবে যে, নারীরা শুধু ভোগের বস্তু না, নারীরা সহযোদ্ধা।  নারীরা সহযোগী।  তাদের সমান অধিকার দিতে হবে।  

বেগম রোকেয়ার অবদানের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বেগম রোকেয়া যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, আমি মনে করি, অনেকটাই আমরা সে স্বপ্নপূরণ করতে সক্ষম হয়েছি।

এবার নারী শিক্ষায় অবদান রাখায় অধ্যাপক হাসিনা জাকারিয়া বেলা এবং নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখায় যশোর জেলার অর্চনা বিশ্বাস রোকেয়া পদক পেয়েছেন।

নারীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখায় কুমিল্লার শামসুন্নাহার রহমান পরাণ এবার মরণোত্তর পদক পেয়েছেন।

আর সাহিত্য ও সংস্কৃতির মাধ্যমে নারী জাগরণে ভূমিকা রাখায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও রোকেয়া হলের প্রভোস্ট জিনাত হুদা এবং পল্লী উন্নয়নে ভূমিকার জন্য কুষ্টিয়ার গবেষক সারিয়া সুলতানাকে রোকেয়া পদক দেওয়া হয়।

রোকেয়া দিবস ও পদক বিতরণ অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন