সাংবাদিকদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তৈরি হতে হবে: সাইফুল আলম
jugantor
সাংবাদিকদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তৈরি হতে হবে: সাইফুল আলম

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৪৪:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সাইফুল আলম

দৈনিক যুগান্তরের সম্পাদক সাইফুল আলম বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব শুরু হয়েছে। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে এখন থেকেই সাংবাদিকদের তৈরি হতে হবে, তা না হলে টিকে থাকা যাবে না।

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ-পিআইবির সেমিনার কক্ষে আয়োজিত এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের (ডিএসইসি) উদ্যোগে ১৬-১৮ ডিসেম্বর এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন পত্রিকা, অনলাইন পোর্টাল ও টিভি চ্যানেলের ৩০ জন সহ-সম্পাদক ও সিনিয়র সহ-সম্পাদক অংশ নেন।

মঙ্গলবার কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদ তুলে দেন যুগান্তর সম্পাদক।

এ সময় প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশে সাইফুল আলম বলেন, আপনারা হলেন সংবাদপত্রের গেটকিপার। ২৪ ঘণ্টাই সংবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে হবে। তথ্যপ্রযুক্তির এ সময়ে নিজেদের সব বিষয়ে দক্ষ করে তুলতে হবে। প্রতিযোগিতা করে টিকে থাকতে হবে। যে কোনো চ্যালেঞ্জে মোকাবিলা করতে হবে। মেধাবী, দক্ষ ও পরিশ্রমী হতে হবে।

তিনি বলেন, যে কোনো সাফল্যকে জীবনের সার্থক মনে করা যাবে না। যে সাফল্যে মানবিক মূল্যবোধ নেই, মানুষ, সমাজ ও রাষ্ট্রের উপকারে আসে না, সেই সাফল্যে জীবন সার্থক হবে না।

সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণের বিষয়ে যুগান্তর সম্পাদক বলেন, গণমাধ্যমকর্মীদের মানোন্নয়নে পিআইবি অনেক সুযোগ করে দিয়েছে। এসব প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের আরও দক্ষ করে তুলতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি একাগ্রতার সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে কাজ করতে হবে। কারণ আপনি সফল হলে ছেঁড়া গেঞ্জিটাও ইতিহাস হবে। আর ব্যর্থ হলে আপনার স্যুট-কোট হবে পরিহাস। এজন্য আসুন আমরা সফল হওয়ার চেষ্টা করি।

কর্মশালায় পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ বলেন, আমাদের দেশে সাংবাদিকদের মানোন্নয়নের জন্য সরকার পিআইবির মতো প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। আমরা সাংবাদিকদের মানোন্নয়নে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আয়োজন করি। ঢাকার বাইরে বিভিন্ন পত্রিকা বের হয়। অনলাইন পোর্টালও রয়েছে। এজন্য মফস্বল সাব-এডিটরদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করব।

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের সভাপতি মামুন ফরাজী বলেন, সংবাদ সম্পাদনায় যারা যুক্ত তাদের যোগ্য ও দক্ষ করে তুলতে আমাদের এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

সাংবাদিকদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তৈরি হতে হবে: সাইফুল আলম

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সাইফুল আলম
ছবি-যুগান্তর

দৈনিক যুগান্তরের সম্পাদক সাইফুল আলম বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব শুরু হয়েছে। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে এখন থেকেই সাংবাদিকদের তৈরি হতে হবে, তা না হলে টিকে থাকা যাবে না। 

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ-পিআইবির সেমিনার কক্ষে আয়োজিত এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের (ডিএসইসি) উদ্যোগে ১৬-১৮ ডিসেম্বর এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন পত্রিকা, অনলাইন পোর্টাল ও টিভি চ্যানেলের ৩০ জন সহ-সম্পাদক ও সিনিয়র সহ-সম্পাদক অংশ নেন।

মঙ্গলবার কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদ তুলে দেন যুগান্তর সম্পাদক।  

এ সময় প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশে সাইফুল আলম বলেন, আপনারা হলেন সংবাদপত্রের গেটকিপার। ২৪ ঘণ্টাই সংবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে হবে। তথ্যপ্রযুক্তির এ সময়ে নিজেদের সব বিষয়ে দক্ষ করে তুলতে হবে। প্রতিযোগিতা করে টিকে থাকতে হবে। যে কোনো চ্যালেঞ্জে মোকাবিলা করতে হবে। মেধাবী, দক্ষ ও পরিশ্রমী হতে হবে। 

তিনি বলেন, যে কোনো সাফল্যকে জীবনের সার্থক মনে করা যাবে না। যে সাফল্যে মানবিক মূল্যবোধ নেই, মানুষ, সমাজ ও রাষ্ট্রের উপকারে আসে না, সেই সাফল্যে জীবন সার্থক হবে না।

সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণের বিষয়ে যুগান্তর সম্পাদক বলেন, গণমাধ্যমকর্মীদের মানোন্নয়নে পিআইবি অনেক সুযোগ করে দিয়েছে। এসব প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের আরও দক্ষ করে তুলতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি একাগ্রতার সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে কাজ করতে হবে। কারণ আপনি সফল হলে ছেঁড়া গেঞ্জিটাও ইতিহাস হবে। আর ব্যর্থ হলে আপনার স্যুট-কোট হবে পরিহাস। এজন্য আসুন আমরা সফল হওয়ার চেষ্টা করি। 

কর্মশালায় পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ বলেন, আমাদের দেশে সাংবাদিকদের মানোন্নয়নের জন্য সরকার পিআইবির মতো প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। আমরা সাংবাদিকদের মানোন্নয়নে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আয়োজন করি। ঢাকার বাইরে বিভিন্ন পত্রিকা বের হয়। অনলাইন পোর্টালও রয়েছে। এজন্য মফস্বল সাব-এডিটরদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করব। 

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের সভাপতি মামুন ফরাজী বলেন, সংবাদ সম্পাদনায় যারা যুক্ত তাদের যোগ্য ও দক্ষ করে তুলতে আমাদের এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন