সীতাকুণ্ডে আগুনে হতাহতের ঘটনায় কুয়েতের আমিরের শোক
jugantor
সীতাকুণ্ডে আগুনে হতাহতের ঘটনায় কুয়েতের আমিরের শোক

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ জুন ২০২২, ১৪:১৬:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন কুয়েতের আমির শেখ নওয়াফ আল-আহমেদ আল-সাবাহ।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ শোক জানান কুয়েতের আমির। শোকবার্তায় তিনি অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন।

একইদিন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ শোক জানান মোদি।

চিঠিতে মোদি তার সরকার এবং ভারতের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের পক্ষ থেকে আন্তরিক সমবেদনা ও সহানুভূতি প্রকাশ করেছেন এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করেছেন।

এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ ও পুনর্বাসনের জন্য বাংলাদেশ সরকারকে সব ধরনের সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মোদি।

এদিকে দমকল বাহিনী, স্বেচ্ছাসেবীসহ বহু মানুষের প্রচেষ্টায় ৮৬ ঘণ্টা পর পুরোপুরি নিভেছে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোর আগুন।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ১৮ বীর ইউনিটের লেফট্যানেন্ট কর্নেল মো. আরিফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ডিপোর আগুন পুরোপুরি নিভে গেছে। কোথাও আগুন নেই। আগুন আর জ্বলছে না।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার আগে প্রায় অর্ধশত মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বহু সম্পদ ধ্বংস হয়ে গেছে।

কিছু কনটেইনার থেকে এখনো ধোঁয়া বের হতে দেখা গেলেও সক্রিয় আগুন নেই জ্বানিয়ে আরিফুল বলেন, কনটেইনারে যে গার্মেন্টস পণ্য আছে সেগুলোতে পানি দেওয়ায় সেখান থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে।

শনিবার রাত ১০টার দিকে সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের কেশবপুর গ্রামে বেসরকারি ওই কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগার পর একের পর এক বিস্ফোরণে তা ছড়িয়ে পড়ে। গত তিন দিন ধরে সেখানে আগুন নেভানো ও উদ্ধারকাজ চালিয়ে আসছেন ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী এবং সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মীরা।
এ ঘটনায় বুধবার দুপুর পর্যন্ত ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সীতাকুণ্ডে আগুনে হতাহতের ঘটনায় কুয়েতের আমিরের শোক

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ জুন ২০২২, ০২:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন কুয়েতের আমির শেখ নওয়াফ আল-আহমেদ আল-সাবাহ। 

মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ শোক জানান কুয়েতের আমির। শোকবার্তায় তিনি অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন।

একইদিন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ শোক জানান মোদি।

চিঠিতে মোদি তার সরকার এবং ভারতের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের পক্ষ থেকে আন্তরিক সমবেদনা ও সহানুভূতি প্রকাশ করেছেন এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করেছেন।

এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ ও পুনর্বাসনের জন্য বাংলাদেশ সরকারকে সব ধরনের সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মোদি।

এদিকে দমকল বাহিনী, স্বেচ্ছাসেবীসহ বহু মানুষের প্রচেষ্টায় ৮৬ ঘণ্টা পর পুরোপুরি নিভেছে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোর আগুন।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ১৮ বীর ইউনিটের লেফট্যানেন্ট কর্নেল মো. আরিফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ডিপোর আগুন পুরোপুরি নিভে গেছে। কোথাও আগুন নেই। আগুন আর জ্বলছে না।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার আগে প্রায় অর্ধশত মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বহু সম্পদ ধ্বংস হয়ে গেছে। 

কিছু কনটেইনার থেকে এখনো ধোঁয়া বের হতে দেখা গেলেও সক্রিয় আগুন নেই জ্বানিয়ে আরিফুল বলেন, কনটেইনারে যে গার্মেন্টস পণ্য আছে সেগুলোতে পানি দেওয়ায় সেখান থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে।

শনিবার রাত ১০টার দিকে সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের কেশবপুর গ্রামে বেসরকারি ওই কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগার পর একের পর এক বিস্ফোরণে তা ছড়িয়ে পড়ে। গত তিন দিন ধরে সেখানে আগুন নেভানো ও উদ্ধারকাজ চালিয়ে আসছেন ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী এবং সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মীরা।
এ ঘটনায় বুধবার দুপুর পর্যন্ত ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন