দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বাস ভাড়া আরও বাড়ল
jugantor
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বাস ভাড়া আরও বাড়ল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০১ জুলাই ২০২২, ১৬:১০:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কের (ঢাকা-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে) টোল হিসাব করে পদ্মা সেতু হয়ে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে চলাচলকারী বাসের ভাড়া আবারও পুনর্নির্ধারণ করেছে সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। নতুন ভাড়া শুক্রবার থেকে কার্যকর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং) শীতাংশু শেখর বিশ্বাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ১৫টি রুটের ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করা হয়। এবার ৪০ ও ৫১ আসনবিশিষ্ট দুধরনের বাসের ভাড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে।

এর আগে গত ৭ জুন রাজধানীর সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১৩টি রুটে চলাচল করা বাস ভাড়া চূড়ান্ত করেছিল বিআরটিএ। এরপর ২০ জুন হালনাগাদ দূরত্বের ভিত্তিতে ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করা হয়।

ঢাকার সায়েদাবাদ থেকে মাওয়া, ভাঙ্গা ও মাদারীপুর হয়ে বরিশালের দূরত্ব ১৫৬ কিলোমিটার, ভাড়া ৪৫৪ টাকা। এর আগে সায়েদাবাদ থেকে বরিশালের ভাড়া যথাক্রমে ৪১২ ও ৪২১ টাকা ধরা হয়েছিল।

৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এক্সপ্রেসওয়ের টোল সংযুক্ত করে ঢাকা-মাদারীপুর রুটে যাত্রীপ্রতি ৩৩ টাকা, ঢাকা-ভাঙ্গা রুটে ৩১, ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে ৩৮, ঢাকা-জাজিরা রুটে ৩২, ঢাকা-বরিশাল রুটে ৪৮, ঢাকা-বাগেরহাট রুটে ৩৬, ঢাকা-পটুয়াখালী-বরিশাল রুটে ৪২, ঢাকা-মাদারীপুর-ভাঙ্গা রুটে ৩১, ঢাকা-খুলনা রুটে ৩৫, ঢাকা-ফরিদপুর-ভাঙ্গা রুটে ৩১, ঢাকা-বুড়িগঙ্গা সেতু-শরীয়তপুর রুটে ৩২ ও ঢাকা-পটুয়াখালী রুটে যাত্রীপ্রতি বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছে ৬৬ টাকা। এর বাইরে কক্সবাজার-বরিশাল রুটে ৩৯ টাকা, চট্টগ্রাম-খুলনা রুটে ৪৩ ও চট্টগ্রাম-বরগুনা রুটে যাত্রীপ্রতি ৫৯ টাকা ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে।

৫১ আসনের বাসে ঢাকা-মাদারীপুর রুটে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫৬ টাকা। একইভাবে ঢাকা-ভাঙ্গা রুটে ৩৩২ টাকা, ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে ৫৪৬, ঢাকা-জাজিরা রুটে ২১১, ঢাকা-বরিশাল রুটে ৪৫৫, ঢাকা-বাগেরহাট রুটে ৪৮৬, ঢাকা-পটুয়াখালী-বরিশাল রুটে ৪৪০, ঢাকা-মাদারীপুর-ভাঙ্গা রুটে ২৭০, ঢাকা-খুলনা রুটে ৫৪১, ঢাকা-ফরিদপুর-ভাঙ্গা রুটে ২৫৩, ঢাকা-বুড়িগঙ্গা সেতু-শরীয়তপুর রুটে ২০১ ও ঢাকা-পটুয়াখালী রুটে যাত্রীপ্রতি বাস ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৬০১ টাকা। এর বাইরে কক্সবাজার-বরিশাল রুটে ১০৪৯ টাকা, চট্টগ্রাম-খুলনা রুটে ৯৩৫ ও চট্টগ্রাম-বরগুনা রুটে যাত্রীপ্রতি ১০০৫ টাকা নতুন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিআরটিএর প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, এ বাস ভাড়ার সঙ্গে মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারের ভাড়া সংযুক্ত করা হয়নি। এ ফ্লাইওভার ব্যবহারকারী ৫১ আসনের বাসে যাত্রীপ্রতি ৬ টাকা ৭২ পয়সা ও ৪০ আসনের বাসে যাত্রীপ্রতি ৯ টাকা ভাড়া দিতে হবে। আজ থেকে ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়েতে টোল আদায় শুরু করতে যাচ্ছে সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তর। আজ থেকেই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রুটগুলোতে নতুন বাসভাড়া কার্যকর হবে।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বাস ভাড়া আরও বাড়ল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০১ জুলাই ২০২২, ০৪:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কের (ঢাকা-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে) টোল হিসাব করে পদ্মা সেতু হয়ে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে চলাচলকারী বাসের ভাড়া আবারও পুনর্নির্ধারণ করেছে সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। নতুন ভাড়া শুক্রবার থেকে কার্যকর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং) শীতাংশু শেখর বিশ্বাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ১৫টি রুটের ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করা হয়। এবার ৪০ ও ৫১ আসনবিশিষ্ট দুধরনের বাসের ভাড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে।

এর আগে গত ৭ জুন রাজধানীর সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১৩টি রুটে চলাচল করা বাস ভাড়া চূড়ান্ত করেছিল বিআরটিএ। এরপর ২০ জুন হালনাগাদ দূরত্বের ভিত্তিতে ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করা হয়।

ঢাকার সায়েদাবাদ থেকে মাওয়া, ভাঙ্গা ও মাদারীপুর হয়ে বরিশালের দূরত্ব ১৫৬ কিলোমিটার, ভাড়া ৪৫৪ টাকা। এর আগে সায়েদাবাদ থেকে বরিশালের ভাড়া যথাক্রমে ৪১২ ও ৪২১ টাকা ধরা হয়েছিল।

৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এক্সপ্রেসওয়ের টোল সংযুক্ত করে ঢাকা-মাদারীপুর রুটে যাত্রীপ্রতি ৩৩ টাকা, ঢাকা-ভাঙ্গা রুটে ৩১, ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে ৩৮, ঢাকা-জাজিরা রুটে ৩২, ঢাকা-বরিশাল রুটে ৪৮, ঢাকা-বাগেরহাট রুটে ৩৬, ঢাকা-পটুয়াখালী-বরিশাল রুটে ৪২, ঢাকা-মাদারীপুর-ভাঙ্গা রুটে ৩১, ঢাকা-খুলনা রুটে ৩৫, ঢাকা-ফরিদপুর-ভাঙ্গা রুটে ৩১, ঢাকা-বুড়িগঙ্গা সেতু-শরীয়তপুর রুটে ৩২ ও ঢাকা-পটুয়াখালী রুটে যাত্রীপ্রতি বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছে ৬৬ টাকা। এর বাইরে কক্সবাজার-বরিশাল রুটে ৩৯ টাকা, চট্টগ্রাম-খুলনা রুটে ৪৩ ও চট্টগ্রাম-বরগুনা রুটে যাত্রীপ্রতি ৫৯ টাকা ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে।

৫১ আসনের বাসে ঢাকা-মাদারীপুর রুটে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫৬ টাকা। একইভাবে ঢাকা-ভাঙ্গা রুটে ৩৩২ টাকা, ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে ৫৪৬, ঢাকা-জাজিরা রুটে ২১১, ঢাকা-বরিশাল রুটে ৪৫৫, ঢাকা-বাগেরহাট রুটে ৪৮৬, ঢাকা-পটুয়াখালী-বরিশাল রুটে ৪৪০, ঢাকা-মাদারীপুর-ভাঙ্গা রুটে ২৭০, ঢাকা-খুলনা রুটে ৫৪১, ঢাকা-ফরিদপুর-ভাঙ্গা রুটে ২৫৩, ঢাকা-বুড়িগঙ্গা সেতু-শরীয়তপুর রুটে ২০১ ও ঢাকা-পটুয়াখালী রুটে যাত্রীপ্রতি বাস ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৬০১ টাকা। এর বাইরে কক্সবাজার-বরিশাল রুটে ১০৪৯ টাকা, চট্টগ্রাম-খুলনা রুটে ৯৩৫ ও চট্টগ্রাম-বরগুনা রুটে যাত্রীপ্রতি ১০০৫ টাকা নতুন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিআরটিএর প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, এ বাস ভাড়ার সঙ্গে মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারের ভাড়া সংযুক্ত করা হয়নি। এ ফ্লাইওভার ব্যবহারকারী ৫১ আসনের বাসে যাত্রীপ্রতি ৬ টাকা ৭২ পয়সা ও ৪০ আসনের বাসে যাত্রীপ্রতি ৯ টাকা ভাড়া দিতে হবে। আজ থেকে ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়েতে টোল আদায় শুরু করতে যাচ্ছে সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তর। আজ থেকেই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রুটগুলোতে নতুন বাসভাড়া কার্যকর হবে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন