লঞ্চভাড়া বাড়াতে আট প্রস্তাব কমিটির
jugantor
লঞ্চভাড়া বাড়াতে আট প্রস্তাব কমিটির

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ আগস্ট ২০২২, ২২:২৬:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

জ্বালানি তেলের দাম পুনর্নির্ধারণের পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানে যাত্রী ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে আটটি প্রস্তাব দিয়েছে এ সংক্রান্ত ওয়ার্কিং কমিটি।

কমিটি সরকারের কাছে ১৯, ২২, ২৫, ৩০, ৩৫, ৪০, ৪২ ও ৫০ শতাংশ হারে ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। এর মধ্য থেকে অনুমোদন দেওয়া হবে একটি প্রস্তাব।

সোমবার রাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম খান এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে দুপুরে সচিবালয়ে ‘জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানের ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে সভা’ হয়। নৌ পরিবহনসচিব মো. মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় লঞ্চ মালিকসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আধা ঘণ্টার বৈঠক শেষে নৌ পরিবহনসচিব সাংবাদিকদের বলেন, তারা (লঞ্চমালিকেরা) লঞ্চের ভাড়া দ্বিগুণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন। কিন্তু তারা যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তা অনেক বেশি।

তিনি আরও বলেন, ভাড়া এত বাড়ানো হবে না; আরও কম হবে। ভাড়া পুনর্নির্ধারণের আগপর্যন্ত বর্তমান ভাড়া কার্যকর থাকবে বলেও জানান মোস্তফা কামাল।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ভাড়া পুনর্নির্ধারণে গঠিত সাত সদস্যের কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ফেরদৌস আলমকে। সদস্যসচিব করা হয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) পরিচালক রফিকুল ইসলামকে। কমিটির অন্য সদস্যের মধ্যে সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রণালয়, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ এবং বিআইডব্লিউটিএর প্রতিনিধি রাখা হয়েছে।

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর লঞ্চমালিকেরা লঞ্চভাড়া দ্বিগুণ করার প্রস্তাব করেন। লঞ্চভাড়া প্রথম ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রতি কিলোমিটার ২ টাকা ৩০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪ টাকা ৬০ পয়সা করার প্রস্তাব দেন। এ ছাড়া ১০০ কিলোমিটার–পরবর্তী প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ২ টাকার জায়গায় ৪ টাকার প্রস্তাব করেন।

লঞ্চভাড়া বাড়াতে আট প্রস্তাব কমিটির

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ আগস্ট ২০২২, ১০:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জ্বালানি তেলের দাম পুনর্নির্ধারণের পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানে যাত্রী ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে আটটি প্রস্তাব দিয়েছে এ সংক্রান্ত ওয়ার্কিং কমিটি।

কমিটি সরকারের কাছে ১৯, ২২, ২৫, ৩০, ৩৫, ৪০, ৪২ ও ৫০ শতাংশ হারে ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। এর মধ্য থেকে অনুমোদন দেওয়া হবে একটি প্রস্তাব।

সোমবার রাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম খান এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে দুপুরে সচিবালয়ে ‘জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানের ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে সভা’ হয়।  নৌ পরিবহনসচিব মো. মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় লঞ্চ মালিকসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আধা ঘণ্টার বৈঠক শেষে নৌ পরিবহনসচিব সাংবাদিকদের বলেন, তারা (লঞ্চমালিকেরা) লঞ্চের ভাড়া দ্বিগুণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন। কিন্তু তারা যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তা অনেক বেশি। 

তিনি আরও বলেন, ভাড়া এত বাড়ানো হবে না; আরও কম হবে। ভাড়া পুনর্নির্ধারণের আগপর্যন্ত বর্তমান ভাড়া কার্যকর থাকবে বলেও জানান মোস্তফা কামাল।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ভাড়া পুনর্নির্ধারণে গঠিত সাত সদস্যের কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ফেরদৌস আলমকে। সদস্যসচিব করা হয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) পরিচালক রফিকুল ইসলামকে। কমিটির অন্য সদস্যের মধ্যে সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রণালয়, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ এবং বিআইডব্লিউটিএর প্রতিনিধি রাখা হয়েছে।

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর লঞ্চমালিকেরা লঞ্চভাড়া দ্বিগুণ করার প্রস্তাব করেন। লঞ্চভাড়া প্রথম ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রতি কিলোমিটার ২ টাকা ৩০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪ টাকা ৬০ পয়সা করার প্রস্তাব দেন। এ ছাড়া ১০০ কিলোমিটার–পরবর্তী প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ২ টাকার জায়গায় ৪ টাকার প্রস্তাব করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন