বালুখেকো সেলিম চেয়ারম্যানের জামিন স্থগিত, আত্মসমর্পণের নির্দেশ
jugantor
বালুখেকো সেলিম চেয়ারম্যানের জামিন স্থগিত, আত্মসমর্পণের নির্দেশ

  চাঁদপুর প্রতিনিধি  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৬:৩৩:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

৩৪ কোটি টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় চাঁদপুরের বালুখেকো হিসেবে আলোচিত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সেলিম খানের জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

মঙ্গলবার সকালে হাইকোর্টের দেওয়া আগাম জামিন স্থগিত করে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চাঁদপুরের বিতর্কিত এই চেয়ারম্যানকে আত্মসমর্পণ করার নির্দেশ দেন চেম্বার আদালত।

এ সময় আদালত বলেন, একই আবেদনে হাইকোর্টে দুই রকমের আদেশ হতে পারে না। মামলা নম্বর ভুল হওয়ায় আবার জামিন আবেদন গ্রহণযোগ্য নয়।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি বিশ্বজিৎ দেবনাথের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাকে আগাম জামিন দেন। পরে তা স্থগিত চেয়ে আবেদন করে দুদক।

গত ১৪ আগস্ট ৩৪ কোটি টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় ৩ সপ্তাহের মধ্যে চাঁদপুরের বিতর্কিত চেয়ারম্যান সেলিম খানকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। কিন্তু সেই আদেশে ভুল আছে উল্লেখ করে আত্মসমর্পণ করেননি তিনি।

প্রসঙ্গত,পদ্মা-মেঘনা নদীর বিভিন্ন স্থানে শতাধিক ড্রেজার দিয়ে সাত বছর ধরে বালু তুলে বিক্রি করছেন চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০ নং লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম খান। কিন্তু এই সময় সরকারকে এক টাকাও রাজস্ব দেননি তিনি। বিষয়টি সরকারের নজরে আসায় রাষ্ট্রীয় কোষাগারে ১৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা জমা দেন।

জানা যায়, ডুবোচর খননের জন্য আদালত তাকে নির্দিষ্ট একটি মৌজায় বালু উত্তোলনের আদেশ দিলেও তা বিক্রির অনুমতি দেয়নি। তারপরও তিনি বালু বিক্রি করেন। সরকারি বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করে অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের কারণে বেড়েছে নদীভাঙন। সেই সঙ্গে ইলিশসহ মৎস্যসম্পদ এবং জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হচ্ছে। সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব।

বালুখেকো সেলিম চেয়ারম্যানের জামিন স্থগিত, আত্মসমর্পণের নির্দেশ

 চাঁদপুর প্রতিনিধি 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

৩৪ কোটি টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় চাঁদপুরের বালুখেকো হিসেবে আলোচিত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সেলিম খানের জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

মঙ্গলবার সকালে হাইকোর্টের দেওয়া আগাম জামিন স্থগিত করে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চাঁদপুরের বিতর্কিত এই চেয়ারম্যানকে আত্মসমর্পণ করার নির্দেশ দেন চেম্বার আদালত।

এ সময় আদালত বলেন, একই আবেদনে হাইকোর্টে দুই রকমের আদেশ হতে পারে না। মামলা নম্বর ভুল হওয়ায় আবার জামিন আবেদন গ্রহণযোগ্য নয়।  

গত ১৪ সেপ্টেম্বর বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি বিশ্বজিৎ দেবনাথের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাকে আগাম জামিন দেন। পরে তা স্থগিত চেয়ে আবেদন করে দুদক।

গত ১৪ আগস্ট ৩৪ কোটি টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় ৩ সপ্তাহের মধ্যে চাঁদপুরের বিতর্কিত চেয়ারম্যান সেলিম খানকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। কিন্তু সেই আদেশে ভুল আছে উল্লেখ করে আত্মসমর্পণ করেননি তিনি।

প্রসঙ্গত, পদ্মা-মেঘনা নদীর বিভিন্ন স্থানে শতাধিক ড্রেজার দিয়ে সাত বছর ধরে বালু তুলে বিক্রি করছেন চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০ নং লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম খান। কিন্তু এই সময় সরকারকে এক টাকাও রাজস্ব দেননি তিনি। বিষয়টি সরকারের নজরে আসায় রাষ্ট্রীয় কোষাগারে ১৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা জমা দেন।

জানা যায়, ডুবোচর খননের জন্য আদালত তাকে নির্দিষ্ট একটি মৌজায় বালু উত্তোলনের আদেশ দিলেও তা বিক্রির অনুমতি দেয়নি। তারপরও তিনি বালু বিক্রি করেন। সরকারি বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করে অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের কারণে বেড়েছে নদীভাঙন। সেই সঙ্গে ইলিশসহ মৎস্যসম্পদ এবং জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হচ্ছে। সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন