সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: বিদায়ী র‌্যাব ডিজি
jugantor
সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: বিদায়ী র‌্যাব ডিজি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৪৪:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের বিরুদ্ধে কেউ সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করলে, দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের বিদায়ী মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।

বুধবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। আগামী শুক্রবার পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার কথা রয়েছে আবদুল্লাহ আল-মামুনের।

এক প্রশ্নের জবাবে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, মাঝেমধ্যে পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসে। কেউ এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করলে, সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর ভোটের সময় নির্বাচন কমিশনের কাঠামোর আলোকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তার দায়িত্ব পালন করে।

নিষেধাজ্ঞার কারণে র‌্যাবে ডিজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করাটা কঠিন সময় ছিল কি না? এবং এ কারণে বন্দুকযুদ্ধ ও মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা তা মনে করি না। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন তোমরা এদেশের পুলিশ, এদেশেরই নাগরিক। আমাদের দেশের মানুষের বিরুদ্ধে কেন আমরা দাঁড়াব। যখন আমরা আক্রান্ত হই, মাদক, অস্ত্র উদ্ধার, মানবপাচারকারী যখন আমাদের ওপর আক্রমণ করে তখন আমরা প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়ে থাকি। আইনে যে ক্ষমতা র‌্যাবকে দিয়েছে তা আমরা ক্রস করি না।

মাদকের বিরুদ্ধে র‌্যাব যুদ্ধ শুরু করেছিল। কিন্তু মাদকের ব্যবহার বেড়েছে, বাড়ছে মাদকসেবী। তাহলে কি অভিযান ব্যর্থ—এমন প্রশ্নের জবাবে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, বিশ্বজুড়ে মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে। কারাগারের অধিকাংশ আসামি মাদকাসক্ত। প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন।যেখানেই মাদকের খবর পাওয়া যাচ্ছে, সেখানেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে। গত সোমবার র‌্যাব ২ লাখ ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে। বড় বড় ইয়াবার চালান, আইসের চালান জব্দ করছে র‌্যাব। সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রম ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের কারণে মাদক নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীরা লুকিয়ে কারবার করছেন।

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন র‌্যাবের মিডিয়া ও লিগ্যাল উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈনসহ র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: বিদায়ী র‌্যাব ডিজি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের বিরুদ্ধে কেউ সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করলে, দায়ী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের বিদায়ী মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।  

বুধবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। আগামী শুক্রবার পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার কথা রয়েছে আবদুল্লাহ আল-মামুনের।

এক প্রশ্নের জবাবে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, মাঝেমধ্যে পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসে। কেউ এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করলে, সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর ভোটের  সময় নির্বাচন কমিশনের কাঠামোর আলোকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তার দায়িত্ব পালন করে।

নিষেধাজ্ঞার কারণে র‌্যাবে ডিজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করাটা কঠিন সময় ছিল কি না? এবং এ কারণে বন্দুকযুদ্ধ ও মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা তা মনে করি না। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন তোমরা এদেশের পুলিশ, এদেশেরই নাগরিক। আমাদের দেশের মানুষের বিরুদ্ধে কেন আমরা দাঁড়াব। যখন আমরা আক্রান্ত হই, মাদক, অস্ত্র উদ্ধার, মানবপাচারকারী যখন আমাদের ওপর আক্রমণ করে তখন আমরা প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়ে থাকি। আইনে যে ক্ষমতা র‌্যাবকে দিয়েছে তা আমরা ক্রস করি না।

মাদকের বিরুদ্ধে র‌্যাব যুদ্ধ শুরু করেছিল। কিন্তু মাদকের ব্যবহার বেড়েছে, বাড়ছে মাদকসেবী। তাহলে কি অভিযান ব্যর্থ—এমন প্রশ্নের জবাবে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, বিশ্বজুড়ে মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে। কারাগারের অধিকাংশ আসামি মাদকাসক্ত। প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন।যেখানেই মাদকের খবর পাওয়া যাচ্ছে, সেখানেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে। গত সোমবার র‌্যাব ২ লাখ ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে। বড় বড় ইয়াবার চালান, আইসের চালান জব্দ করছে র‌্যাব। সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রম ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের কারণে মাদক নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীরা লুকিয়ে কারবার করছেন।

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন র‌্যাবের মিডিয়া ও লিগ্যাল উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈনসহ র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন