পদ্মা ও মেঘনা বিভাগ হচ্ছে না 
jugantor
পদ্মা ও মেঘনা বিভাগ হচ্ছে না 

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৪:০৬:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন দুটি বিভাগ করা নিয়ে জোর আলোচনা হচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত পদ্মা ও মেঘনা নামে বিভাগ করার প্রস্তাব স্থগিত করা হয়েছে।

রোববার প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাসক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) সভায় এ প্রস্তাব স্থগিত করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভায় সভাপতিত্ব করেন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বৃহত্তর ফরিদপুরের কয়েকটি জেলা নিয়ে ‘পদ্মা’ বিভাগ এবং কুমিল্লা ও আশপাশের জেলাগুলো নিয়ে হবে ‘মেঘনা’ বিভাগ করার কথা ছিল।

অর্থনৈতিক সংকট বিবেচনায় ব্যয় সংকোচনের কারণেই আপাতত নতুন বিভাগ হচ্ছে না বলে জানা গেছে।

নিকারের সদস্য ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামে নতুন বিভাগ করার দুটি প্রস্তাব স্থগিত রাখা হয়েছে। এটি এখন অগ্রাধিকারমূলক বিষয় নয়। কারণ, এখন সারা পৃথিবীতে সংকট চলছে। এখন একেকটি বিভাগ করতে গেলে এক হাজার কোটি টাকার বেশি খরচ হবে। তাই এখন এটি স্থগিত রাখা হয়েছে।

নতুন বিভাগ, জেলা, উপজেলা, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, থানা গঠন বা স্থাপনের প্রস্তাব সরকারের প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটিতে (নিকার) অনুমোদিত হয়। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে (আহ্বায়ক) নিকারের সদস্য হিসেবে থাকেন সরকারের বেশ কয়েকজন মন্ত্রী ও সচিব।

বর্তমানে দেশে আটটি প্রশাসনিক বিভাগ রয়েছে। এগুলো হলো—ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ।

এর বাইরে নতুন করে ‘পদ্মা’ নামে বৃহত্তর ফরিদপুরের জেলাগুলো নিয়ে একটি এবং ‘মেঘনা’ নামে বৃহত্তর কুমিল্লা ও আশপাশের জেলাগুলো নিয়ে আরেকটি নতুন বিভাগ হবে—এমন ঘোষণা আগেই দিয়েছেন সরকারের নীতিনির্ধারকরা।
এর মধ্যে গত বছরের অক্টোবরে ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রস্তাবিত এ দুই বিভাগ নিয়ে কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেষ পর্যন্ত নতুন বিভাগ করারে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে সরকার।

পদ্মা ও মেঘনা বিভাগ হচ্ছে না 

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৭ নভেম্বর ২০২২, ০২:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন দুটি বিভাগ করা নিয়ে জোর আলোচনা হচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত পদ্মা ও মেঘনা নামে বিভাগ করার প্রস্তাব স্থগিত করা হয়েছে।

রোববার প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাসক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) সভায় এ প্রস্তাব স্থগিত করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভায় সভাপতিত্ব করেন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বৃহত্তর ফরিদপুরের কয়েকটি জেলা নিয়ে ‘পদ্মা’ বিভাগ এবং কুমিল্লা ও আশপাশের জেলাগুলো নিয়ে হবে ‘মেঘনা’ বিভাগ করার কথা ছিল। 

অর্থনৈতিক সংকট বিবেচনায় ব্যয় সংকোচনের কারণেই আপাতত নতুন বিভাগ হচ্ছে না বলে জানা গেছে। 

নিকারের সদস্য ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামে নতুন বিভাগ করার দুটি প্রস্তাব স্থগিত রাখা হয়েছে। এটি এখন অগ্রাধিকারমূলক বিষয় নয়। কারণ, এখন সারা পৃথিবীতে সংকট চলছে। এখন একেকটি বিভাগ করতে গেলে এক হাজার কোটি টাকার বেশি খরচ হবে। তাই এখন এটি স্থগিত রাখা হয়েছে। 

নতুন বিভাগ, জেলা, উপজেলা, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, থানা গঠন বা স্থাপনের প্রস্তাব সরকারের প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটিতে (নিকার) অনুমোদিত হয়। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে (আহ্বায়ক) নিকারের সদস্য হিসেবে থাকেন সরকারের বেশ কয়েকজন মন্ত্রী ও সচিব। 

বর্তমানে দেশে আটটি প্রশাসনিক বিভাগ রয়েছে। এগুলো হলো—ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ। 

এর বাইরে নতুন করে ‘পদ্মা’ নামে বৃহত্তর ফরিদপুরের জেলাগুলো নিয়ে একটি এবং ‘মেঘনা’ নামে বৃহত্তর কুমিল্লা ও আশপাশের জেলাগুলো নিয়ে আরেকটি নতুন বিভাগ হবে—এমন ঘোষণা আগেই দিয়েছেন সরকারের নীতিনির্ধারকরা। 
এর মধ্যে গত বছরের অক্টোবরে ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রস্তাবিত এ দুই বিভাগ নিয়ে কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

শেষ পর্যন্ত নতুন বিভাগ করারে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে সরকার। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন