ওয়েবসাইট থেকে বই পড়াতে পারেন শিক্ষকরা: শিক্ষামন্ত্রী
jugantor
ওয়েবসাইট থেকে বই পড়াতে পারেন শিক্ষকরা: শিক্ষামন্ত্রী

  চাঁদপুর প্রতিনিধি  

০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫:২০:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, কোথাও বই পৌঁছাতে দেরি হয়ে থাকলে অবশ্যই তা দেখব। এর পরও যদি কোনো ব্যত্যয় ঘটে তা হলে ওয়েবসাইটে প্রতিটি বই দেওয়া আছে, শিক্ষকরা সেখান থেকে শিক্ষার্থীদের পড়াতে পারেন।

শুক্রবার সকালে চাঁদপুর সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত, সমৃদ্ধশালী ও সুখী দেশ হবে, আর সেটি হবে স্মার্ট বাংলাদেশ। আমাদের সব সেবা, সব কাজ এবং বিজ্ঞান-প্রযুক্তি, যা কিছু আছে সব প্রযুক্তি নিয়ে মানুষ দক্ষ হয়ে উঠবে। যত স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আছে, যত সেবার মান আছে, তা নিশ্চিত হবে। কাজেই স্মার্ট বাংলাদেশ মানে সেই বাংলাদেশ, যেখানে প্রত্যেকটি মানুষ স্মার্ট নাগরিক হবেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুরকন্যা ঠিক পিতার মতো। যখন যে স্বপ্ন দেখান, তা বাস্তবায়ন করেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ, মধ্যম আয়ের দেশ, উন্নয়নশীল দেশের কথা বলেছিলেন, হয়েছি আমরা।

দীপু মনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ মানে, যেখানে প্রতিটি নাগরিক, সরকার, সমাজ ও অর্থনীতি স্মার্ট হবে। আমাদের কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্র স্মার্ট হবে। এর মধ্য দিয়ে তারা উন্নত জীবন যাপন করবে। এটিই মূলত স্মার্ট বাংলাদেশ।

এ সময় জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, অ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান ভুঁইয়া, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানজিদা শাহনাজসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর পর মন্ত্রী নির্বাচনি এলাকা হাইমচর উপজেলার বিভিন্ন কর্মূচিতে অংশ নেন এবং জনসাধারণের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

ওয়েবসাইট থেকে বই পড়াতে পারেন শিক্ষকরা: শিক্ষামন্ত্রী

 চাঁদপুর প্রতিনিধি 
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৩:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শিক্ষামন্ত্রী
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি: যুগান্তর

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, কোথাও বই পৌঁছাতে দেরি হয়ে থাকলে অবশ্যই তা দেখব। এর পরও যদি কোনো ব্যত্যয় ঘটে তা হলে ওয়েবসাইটে প্রতিটি বই দেওয়া আছে, শিক্ষকরা সেখান থেকে শিক্ষার্থীদের পড়াতে পারেন।  

শুক্রবার সকালে চাঁদপুর সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত, সমৃদ্ধশালী ও সুখী দেশ হবে, আর সেটি হবে স্মার্ট বাংলাদেশ। আমাদের সব সেবা, সব কাজ এবং বিজ্ঞান-প্রযুক্তি, যা কিছু আছে সব প্রযুক্তি নিয়ে মানুষ দক্ষ হয়ে উঠবে। যত স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আছে, যত সেবার মান আছে, তা নিশ্চিত হবে। কাজেই স্মার্ট বাংলাদেশ মানে সেই বাংলাদেশ, যেখানে প্রত্যেকটি মানুষ স্মার্ট নাগরিক হবেন।  

মন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুরকন্যা ঠিক পিতার মতো। যখন যে স্বপ্ন দেখান, তা বাস্তবায়ন করেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ, মধ্যম আয়ের দেশ, উন্নয়নশীল দেশের কথা বলেছিলেন, হয়েছি আমরা। 

দীপু মনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ মানে, যেখানে প্রতিটি নাগরিক, সরকার, সমাজ ও অর্থনীতি স্মার্ট হবে। আমাদের কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্র স্মার্ট হবে। এর মধ্য দিয়ে তারা উন্নত জীবন যাপন করবে। এটিই মূলত স্মার্ট বাংলাদেশ।

এ সময় জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, অ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান ভুঁইয়া, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানজিদা শাহনাজসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর পর মন্ত্রী নির্বাচনি এলাকা হাইমচর উপজেলার বিভিন্ন কর্মূচিতে অংশ নেন এবং জনসাধারণের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন